অপুকে ‘তালাকনামা পাঠিয়েছেন’ শাকিব

গ্লিটজ প্রতিবেদক>গুঞ্জন চলছিল মাস দুয়েক ধরেই; এবার সত্যি সত্যি ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিচ্ছেদ ঘটছে বলে জানালেন একজন প্রযোজক।

শাকিব খানের ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত প্রযোজক মোহাম্মদ ইকবাল সোমবার দুপুরে গ্লিটজকে বলেন, গত শুক্রবারই আইনজীবীর মাধ্যমে তালাকনামা পাঠিয়েছেন এই চিত্রনায়ক।

“শাকিব খান ‘নোলক’ সিনেমার শুটিংয়ে আছেন ভারতে। আজ দুপুর ১টায় ফোন করেছিলাম। তালাকনামা পাঠিয়েছেন বলে জানালেন।”

ইকবাল জানান, সকাল থেকে সাংবাদিকদের একের পর এক ফোন পেয়েই তিনি শাকিবকে ফোন করেছিলেন।

“আমি জিজ্ঞাসা করেছিলাম ঘটনা আসলে সত্য কি না? শাকিব বলেছে, ঘটনা সত্য।”

বিষয়টি নিয়ে অপু ও শাকিবের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হলেও তাদের কেউ ফোন ধরেননি।

তবে শাকিবের আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছেন, “গত ২২ নভেম্বর ডিভোর্স লেটার পাঠানো হয়েছে। তাকে আইনগত পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।”

এই তারকা জুটির বিচ্ছেদ নিয়ে গত দুই মাসে একাধিকবার প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে পত্রিকায়। কিন্তু অপু সেসব খবর উড়িয়েই দিয়েছিলেন।

১০ নভেম্বর গ্লিটজকে এক সাক্ষাৎকারে এই চিত্রনায়িকা বলেন, “আমার সঙ্গে তার বিবাহিত জীবন অনেক দিনের, আমি ধর্মান্তরিত হয়েছি, আমার একটি বাচ্চা আছে-আমি এই ধরনের বিতর্কে খুবই বিরক্ত।”

এসব খবর নিয়েও সেদিন ক্ষোভ প্রকাশ করেন অপু।

“পারিপার্শ্বিক কারণে ছোটখাটো কিছু ঘটনা ঘটে, কিন্তু সেটাকে মানুষ এভাবে প্রচার করছে বলে খুব কষ্ট পাচ্ছি। প্রত্যেকটা মানুষেরই ব্যক্তিগত জীবন আছে। কিন্তু এসবের মধ্যে শাকিবও নাই, আমিও নাই।”

২০০৬ সালে ‘কোটি টাকার কাবিন’ চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে শাকিব-অপুর জুটি গড়ে ওঠে। ২০০৮ সালে তাদের বিয়ে হয়। গতবছরের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতায় তাদের পুত্রসন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু সেসব তারা আড়ালেই রেখেছিলেন।

অপু গত এপ্রিলে সন্তান কোলে টেলিভিশন লাইভে এসে সেই খবর প্রকাশ করলে বিষয়টি নাটকীয়তার জন্ম দেয়।

শাকিব খান এ নিয়ে শুরুতে বিভিন্ন রকম কথা বললেও পরে তাদের মধ্যে মিটমাট হয়ে যায়।