অতিরিক্ত সচিব হলেন ১২৮ কর্মকর্তা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক >
স্থায়ী পদের ব্যাপক ঘাটতি থাকলেও জনপ্রশাসনের আরও ১২৮ কর্মকর্তাকে যুগ্ম-সচিব থেকে পদোন্নতি দিয়ে অতিরিক্ত সচিব করেছে সরকার।

রেওয়াজ অনুযায়ী পদোন্নতির পর এসব কর্মকর্তাকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করে সোমবার আদেশ জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

বর্তমান সরকারের মেয়াদে পঞ্চম দফায় জনপ্রশাসনের কর্মকর্তারা বড় ধরনের পদোন্নতি পেলেন। কয়েক দিনের মধ্যে যুগ্ম-সচিব ও উপসচিব পদেও পদোন্নতি দেওয়া হবে বলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

এবার অতিরিক্ত সচিব পদে নবম ও দশম ব্যাচের কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ১৯৮২, ১৯৮৪, ১৯৮৫ ও ১৯৮৬ ব্যাচের বাদপড়া কয়েকজনও পদোন্নতি পেয়েছেন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, অতিরিক্ত সচিবের স্থায়ী পদের সংখ্যা ১১১টি এবং যুগ্ম-সচিবের স্থায়ী পদ আছে ৪৩০টি।

সোমবারের পদোন্নতির পর অতিরিক্ত সচিব ও যুগ্ম-সচিবের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৫৬০ জন ও ৬৫৩ জনে।

স্থায়ী পদের চেয়ে বেশি সংখ্যক কর্মকর্তাকে অতিরিক্ত সচিব হিসেবে পদোন্নতি দেওয়ায় সবাইকে পদায়ন করা সম্ভব হবে না জানিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, বেশিরভাগ কর্মকর্তাকেই আগের পদেই পদায়ন (ইন সি টু) করা হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা বলেন, মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের (এসএসবি) বেশ কয়েকটি সভার পর গত মাসে কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দেওয়ার তালিকা চূড়ান্ত করে অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হয়।

“ওই তালিকা অনুমোদন না দিয়ে প্রধানমন্ত্রী কিছু পর্যবেক্ষণসহ তা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ফেরত পাঠান। পরে আরও এসএসবির সভার মধ্য দিয়ে ওই তালিকা চূড়ান্ত করা হয়।”

প্রধানমন্ত্রী রোববার (১০ ডিসেম্বর) অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতিপ্রাপ্তদের তালিকা অনুমোদন করেন জানিয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, রোববারই তা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে আসে।

সবশেষ গত ২৩ এপ্রিল ২৬৭ জন জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিবকে উপসচিব পদে পদোন্নতি দেয় সরকার। ২০১৬ সালের ২৭ নভেম্বর অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম-সচিব ও উপসচিবের তিন স্তরে পদোন্নতি পান ৫৩৬ জন কর্মকর্তা।

২০১৬ সালের মে মাসে অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম-সচিব ও উপসচিব পদে ২১৭ কর্মকর্তা এবং ২০১৫ সালের জুনে উপ-সচিব, যুগ্ম-সচিব এবং অতিরিক্ত সচিব পদে আরও ৮৭৩ কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেয় সরকার।

২০০৯-২০১৩ মেয়াদে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার বিভিন্ন ধাপে জনপ্রশাসনের ২ হাজার ৫২৮ জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দিয়েছিল।

গত সরকারের আমলে পদোন্নতি পাওয়া দুই হাজার ৫২৮ কর্মকর্তার মধ্যে সচিব পদে ৭৮ জন, অতিরিক্ত সচিব পদে ২৯৩ জন, যুগ্ম-সচিব পদে এক হাজার ৯১ জন এবং উপ-সচিব হিসাবে ১ হাজার ৬৬ জন পদোন্নতি পান।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এপিডি (অ্যাপয়নমেন্ট, পোস্টিং অ্যান্ড ডেপুটেশন) শেখ ইউসুফ হারুন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, নতুন করে নবম ব্যাচের কর্মকর্তাদের অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। এর আগে বাদপড়া ব্যাচের কর্মকর্তারাও পদোন্নতি পেয়েছেন।

যুগ্ম-সচিব ও উপ-সচিব পদে পদোন্নতি দেওয়ার কাজ চলছে জানিয়ে এপিডি বলেন, যারা পদোন্নতি পাননি তাদের কেউ বলতে পারেন বঞ্চিত হয়েছেন, কিন্তু এখানে বঞ্চিতের কোনো বিয়ষ নেই। যারা পদোন্নতির শর্ত অর্জন করেছেন তারাই পদোন্নতি পেয়েছেন।

“অনেকে বলবেন যোগ্য ছিলাম পদোন্নতি পাইনি। কিন্তু দেখা যাবে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা আছে, এসিআর-এ নম্বর কম, অনেকের প্রতিবেদনও খারাপ।”

পদোন্নতি পাওয়া বেশিরভাগ কর্মকর্তাকে আগেই পদের পদায়ন করা হবে জানিয়ে ইউসুফ হারুন বলেন, সবাইকে পদায়ন করা যাবে না। যারা শিগগিরই পিআরএলে যাবেন তাদেরও পদায়ন করা হবে না।