ডুমুরিয়ায় ধানের বালাই ব্যবস্থাপনা শীর্ষক কর্মশালা

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি >
ডুমুরিয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে মঙ্গলবার দিনব্যাপী ধানের বালাই ব্যবস্থাপনা শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আশেক হাসানের সভাপতিত্বে শহীদ জোবায়েদ আলী মিলনায়তনে অনু্িষ্ঠত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খুলনাঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ নিত্যরঞ্জন বিশ্বাস। বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খামারবাড়ি উপপরিচালক কৃষিবিদ আব্দুল লতিফ, উপজেলা চেয়ারম্যান খান আলী মুনসুর, প্রফেসর ডঃ রেজাউল ইসলাম, বিআরআরআই’র সাতক্ষীরার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডঃ ইব্রাহিম, ডিএই খুলনার অতিরিক্ত উপপরিচালক হাসান ওয়ারিসুল কবির ও জেলা প্রশিক্ষন কর্মকর্তা পঙ্কজ কান্তি মজুমদার। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্যদেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ নজরুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আতিকুন্নাহার, উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, কৃষক অরিন্দম মল্লিক প্রমুখ। এ কর্মশালায় সমন্বিত বালাই ব্যবস্থাপনা, বীজ সংরক্ষণ ও বালাই ব্যবস্থাপনা, ধানের বাদামী গাছ ফড়িং (কারেন্ট পোকা) ব্যবস্থাপনা ও ধানের ব্লাস্ট রোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ৪টি স্টলে কৃষকদেরকে পরামর্শ দেয়া হয়। অতিথিবৃন্দ সকল স্টলগুলো পরিদর্শন করেন।

ডুমুরিয়ায় দুর্নীতি বিরোধী দিবসে
মানববন্ধন ও আলোচনা সভা

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি
ডুমুরিয়ায় আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালন উপলক্ষে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা প্রশাসন ও দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির আয়োজনে মঙ্গলবার সকালে খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কে মানববন্ধন শেষে শহীদ জোবায়েদ আলী মিলনায়তনে দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুল ইসলাম মানিকের সভাপতিত্বে বক্তব্যদেন উপজেলা চেয়ারম্যান খান আলী মুনসুর, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আশেক হাসান, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিরিনা দৌলত, দুদকের সহকারী পরিচালক খুলনার নাজমুল হুসাইন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, উপজেলা প্রকৌশলী বিদ্যুৎ কুমার দাস, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আশরাফ হোসেন, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা এসএম কামরুজ্জামান, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম মহিউদ্দিন, খুলনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি’র ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার ডুমুরিয়া শাখার আবুল বাশার আজাদ, কলেজ অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম, থানার ওসি তদন্ত তারক চন্দ্র বিশ্বাস, অধ্যাঃ গোপাল কৃষ্ণ সরকার, অধ্যাঃ খান নুরুল ইসলাম, শিক্ষক মোহাম্মদ রফি, মুক্তিযোদ্ধা মাহাবুব রহমান, ফিরোজ রহমান, আতিয়ার রহমান মোড়ল, নাজিম উদ্দিন, মোশাররফ হোসেন কচি, শিক্ষক হারুন-অর-রশিদ খান, আবু তারেক খান, জাহিদুর রহমান বিপ্লব প্রমুখ।