পর্দায় এল সুবোধ!

স্পন্দন বিনোদন ডেস্ক :
পর্দায় এল সুবোধ!

‘আসলে কে এই সুবোধ? কেনই বা সে পালাচ্ছে। তা কি আদৌ জানা যাবে?’ এক সাংবাদিকের কণ্ঠে এমন প্রশ্ন প্রতিবেদনের খবর নিয়েই শুরু হয় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘তোর ভাগ্যে কিছু নেই’।

আলোচিত গ্রাফিতি চরিত্র সুবোধকে নিয়ে নির্মিত হয়েছে এই স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি। নভেম্বরে মাঝামাঝিতে ট্রেলর প্রকাশ করেই গণমাধ্যমের নজর কেড়ে নেয়া এই স্বল্পদৈর্ঘ্যটি একটি শর্টফিল্ম প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে মুক্তি পেয়েছে।

তরুণ নির্মাতা আবদুল্লাহ মাহফুজ অভি পরিচালিত এ শর্টফিল্মটি বাংলাদেশের ইনটকিজ ও কলকাতার চিত্রবানী আয়োজিত শর্টফিল্ম প্রতিযোগিতার মাধ্যমে গত ৮ ডিসেম্বর ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে।

বাংলাদেশ ও কলকাতা থেকে চার শতাধিক চলচ্চিত্রের মধ্য থেকে প্রতিযোগীতার দুটি বিভাগেই চূড়ান্ত লড়াইয়ের জন্য মনোনীত হয়েছে সিনেমাটি। এই প্রতিযোগিতায় জুড়ি বোর্ডের বিচারের জন্য মনোনীত হয়েছে ৩০টি ও দর্শক বিচারের জন্য মনোনীত হয়েছে ৬০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র।

সিনেমাটির নির্মাতা আবদুল্লাহ মাহফুজ অভি বলেন, ‘এখন আসলে আমরা এমন একটি সময় পার করছি যখন বানিজ্যিক ভাবেও নির্মিত হচ্ছে শর্টফিল্ম।’

তিনি বলেন, বাণিজ্যিক বলতে বিজ্ঞাপনের ভাষা নিয়ে পণ্য প্রচারের জন্যও নির্মিত হচ্ছে শর্টফিল্ম। ওই সব শর্টফিল্মের জন্য বড় বড় বাজেটও রয়েছে।

এই অবস্থায় আসলে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফিল্ম মেকারদের জন্য তার কাজ সামনে নিয়ে আসা অনেক বেশি কঠিন। পূজির বিরুদ্ধে লড়াইতো সোজা কথা না। কিন্তু আমরা সে কাজটিই করছি।

মাহফুজ অভি বলেন, আমরা মূলত আমাদের কাজের দর্শন ধরন ও গল্প ভাবনাটিকেই তুলে ধরার দিকে মনযোগ দিয়েছি। সুবোধের গ্রাফিতি অবলম্বেনে যে কাজটি হয়েছে সেটাও এমনই একটি কাজ। আশা করি মনযোগ দর্শকদের চিন্তায় কড়া নাড়বে।

এ চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেছেন তরুণ প্রকৌশলী ও লেখক মেহেদী আসিফ। সম্পাদনা করেছেন মেহেদী হাসান। এর সহকারী পরিচালক সোহান ফেরদৌস।

স্বল্পদৈর্ঘ্য এই চলচ্চিত্রে সুবোধকে নিয়ে একটি গান রয়েছে। গানের কথা, সুর ও কণ্ঠ দিয়েছেন মাহা মীর্জা। বাঙ্গাল মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের ব্যানারে লাস্টবেঞ্চ প্রোডাকশনের