যশোর পালবাড়ির রয়েল কমিউনিটি থেকে মৃতদেহ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক>
মঙ্গলবার রাতে যশোর শহরের পালবাড়ির রয়েল কমিউনিটি সেন্টারের বাথরুমের দরজা ভেঙ্গে আজাহার শেখ (৫০) নামে একজনের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। তিনি যশোরের অভয়নগর উপজেলার বিভাসদি গ্রামের মৃত তালেব শেখের ছেলে। ঘটনার সময় সেখানে নিষিদ্ধ ওয়ান টেন (জুয়া) খেলা চলছিলো বলে জানা গেছে।
যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত ৭ টা ৫২ মিনিটে আজাহার শেখকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হয়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক কাজল মল্লিক পরীক্ষা নিরীক্ষা করে জানতে পারেন হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত সেবক জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, আজাহার আলীর বহনকারী অভয়নগর উপজেলার গাজিপুর গ্রামের আনছার শেখের ছেলে বিপুল শেখ চিকিৎসককে জানান, তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন। যে কারনে স্বাভাবিক মৃত্যু বলে তার মৃতদেহ ছেড়ে দেয়া হয়। আজাহার আলীর মৃত্যু সনদও গ্রহণ করেছেন বিপুল শেখ।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত পৌনে ৭ টার দিকে আজাহার শেখ পালবাড়ির রয়েল কমিউনিটি সেন্টারের বাথরুমে যান। দীর্ঘক্ষণেও তার কোন সাড়া না মেলায় বিষয়টি কমিউনিটি সেন্টার কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়। পরে বাথরুমের দরজা ভেঙে দেখা যায় তিনি নিচে পড়ে আছেন। ওই সময় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে আনা হয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আজাহার আলী যখন বাথরুমে গিয়েছিলেন তখনও রয়েল কমিউনিটি সেন্টারে ওয়ান টেন নামক জুয়া খেলা চলছিলো। সূত্রের দাবি আজাহার আলী একজন পেশাদার জুয়াড়ি। ওয়ানটেন খেলা করতে এসেই বাথরুমে গিয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, এদিন তিনি ওয়ানটেন খেলে দেড় লক্ষাধিক টাকাও হেরে যান।
যশোর শহরের পুরাতন কসবা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর শেহাবুর রহমান শিহাব দৈনিক স্পন্দনকে জানান, রয়েল কমিউনিটি সেন্টারের বাথরুমে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে আজাহার আলী নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে শুনেছেন। তবে তিনি ওয়ানটেন খেলতে সেখানে এসেছিলেন কিনা তা এখনো জানা যায়নি। বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে জানাতে পারবেন।