পিতা ও মামার অবস্থা গুরুতর> মোটরসাইকেলে ঘুরতে বেরিয়ে ট্রাকে প্রাণ গেল শিশুর

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোরে পিতার সাথে মোটরসাইকেলে ঘুরতে বের হয়ে জীবন গেলো ৭ বছরের শিশু আবু মুছার। ঘাতক ট্রাক কেড়ে নিয়েছে তার প্রাণ প্রদীপ। বৃহস্পতিবার শহরের বারান্দীপাড়া ঢাকা রোডের বিসিএমসি কলেজের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এসময় আহত তার পিতা ও মামার অবস্থা গুরুতর। তাদের যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির পর উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় রেফার্ড করা হয়েছে।
স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, সাতক্ষীরার তালা উপজেলার আড়ংঘাটা গ্রামের জাহাবক্সের ছেলে আব্দুস সবুর (৪৫) স্ত্রী সন্তান নিয়ে শ্বশুর যশোর সদরের বাহাদুরপুরের তছমির ওরফে মাসুদ রানার বাড়ি বেড়াতে আসেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৫ টার দিকে আব্দুস সবুরের সাথে মোটরসাইকেলে ঘুরতে বের হয় তার ছেলে আবু মুছা (৭) ও শ্যালক সোহানুর রহমান সোহান (১৫)। তারা মোটরসাইকেলে করে মনিহার বাসস্ট্যান্ডের দিকে যাচ্ছিলো। পথিমধ্যে বিসিএমসি কলেজের কাছে পৌঁছালে সামনে থেকে আসা একটি ট্রাক তাদের মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। আঘাতে তারা তিনজন মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে সড়কের উপর পড়ে। এলাকার লোকজন তাদের উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে আনেন।
জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক হাবিবুর রহমান ভুইয়া জানান, হাসপাতালে আনার আগেই শিশু আবু মুছার মৃত্যু হয়। মাথায় প্রচন্ড আঘাত লাগার কারনে শিশুটির মৃত্যু হতে পারে। আহত আব্দুস সবুর ও সোহানুর রহমান সোহানকে ভর্তি করে সার্জারী ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে। অর্থোপেডিক বিভাগের কনসালটেন্ট ডাঃ জি এম মোহাম্মদ আলী জানিয়েছেন, আহত দুজনের অবস্থা আশংকাজনক। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।