নির্ভুল ভোটার তালিকা চায় ইসি

স্পন্দন নিউজ ডেস্ক : আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সুষ্ঠু ও নির্ভুল ভোটার তালিকা করতে চায় নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে রোববার ভোটার তালিকা হালনাগাদে সংশোধনী কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

তিনি বলেন, ‘২ জানুয়ারি খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এই খসড়া ভোটার তালিকার উপরে আগামী ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত দাবি আপত্তি সংশোধনের বিষয়ে আবেদন গ্রহণ, এই আবেদনের পর সংশোধনকারী কর্তৃপক্ষ যারা আছেন তারা ২২ জানুয়ারির মধ্যে সংশোধনগুলো নিষ্পত্তি করবেন, ২৭ তারিখের মধ্যে কম্পাইল করবেন এবং ৩১ তারিখে খসড়া তালিকাটি চূড়ান্ত করবেন।’

‘এজন্য আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, ক্যান্টনমেন্ট এক্সিকিউটিভ অফিসার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এবং উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাদেরকে আমরা একদিনের একটি ব্রিফিং দিয়েছি যাতে, এই খসড়া ভোটার তালিকাটি সঠিকভাবে চূড়ান্তভাবে যাতে রুপ পায়। এই ভোটার তালিকার উপরেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।’

‘সুতরাং আমরা চাই সামনে যে ভোটার তালিকাটি হবে সেটি যাতে নির্ভুল হয়, সে জন্য এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে।’

এর আগে ২ জানুয়ারি চলতি বছর হালনাগাদের পর খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করে ইসি। খসড়া তালিকায় বলা হয় দেশে বর্তমানে ভোটার ১০ কোটি ৪০ লাখ ৫১ হাজার ৮৮৩ জন।’

সেদিন ভারপ্রাপ্ত সচিব জানান. গত বছরের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত মোট ভোটার ছিল ১০ কোটি ১৪ লাখ ৪০ হাজার ৬০১ জন। এবার হালনাগাদে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে ৩৩ লাখ ৩২ হাজার ৫৯৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১৬ লাখ ৩২ হাজার ৯৭১ জন এবং নারী ১৬ লাখ ৯৯ হাজার ৬২২ জন।

এর আগে ২০১৫ সালে আগাম তথ্য নেওয়া হয়েছিল, সেখান থেকে যোগ হয়েছে ৯ লাখ ৬২ হাজার ২৯৬ জন। আর বছরের বিভিন্ন সময় ভোটার হয়েছেন ২ লাখ ৭০ হাজার ১৫৮ জন।

এবার হালনাগাদে তালিকা থেকে মৃত ভোটার বাদ দেওয়া হয়েছে ১৭ লাখ ৪৮ হাজার ৯৩৪ জন। সব মিলিয়ে এখন বর্তমানে দেশে মোট ভোটার ১০ কোটি ৪০ লাখ ৫১ হাজার ৮৮৩ জন।

এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ কোটি ২৪ লাখ হাজার ৬২ হাজার ৮৬৫ জন এবং নারী ভোটার ৫ কোটি ১৫ লাখ ৮৯ হাজার ১৮ জন।

ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ আরো বলেন, ‘আগামী ৩১ জানুয়ারি চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে। যাচাই-বাছাই শেষে চূড়ান্ত তালিকায় ভোটার কম-বেশি হতে পারে।’

‘এসব আবেদন নিষ্পত্তির শেষ সময় ২২ জানুয়ারি; নিষ্পত্তি শেষে সিদ্ধান্ত ২৭ জানুয়ারির মধ্যে এবং চূড়ান্ত হালনাগাদ তালিকা প্রকাশ করা হবে ৩১ জানুয়ারি।’

রেজিস্ট্রেশন অফিসার ও অন্য কর্মকর্তাদের স্বাক্ষরসহ হালনাগাদ ভোটার তালিকার খড়সার সংশ্লিষ্ট জেলা নির্বাচন অফিস, উপজেলা নির্বাচন অফিস, ইউনিয়ন পরিষদ/পৌরসভা, ওয়ার্ড অফিস, ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড অথবা রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্র অথবা জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে সর্বসাধারণের পরিদর্শনের জন্য উন্মুক্ত রাখা হবে বলে জানিয়েছে ইসি।

বৈঠকে নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলামসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।