ড্রাগন সোয়েটারকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক>

আইন ভঙ্গ করায় পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ড্রাগন সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিংকে (ডিএসএসএল) জরিমানা করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

মঙ্গলবার কমিশন সভায় কোম্পানিটিকে ৩০ লাখ টাকার জরিমানা আরোপের সিদ্ধান্ত হয় বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

২০১৭ সালের মার্চে পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত হয় বস্ত্র খাতে এ কোম্পানিটি। তখন ১০ টাকা অভিহিত মুল্যের চার কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ৪০ কোটি টাকা তোলে ড্রাগন সোয়েটার।

কমিশনের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কোম্পানিটি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে তোলা অর্থের ৫৩ দশমিক ৬২ শতাংশ নগদ ব্যয় করেছে এবং তা খরচ হিসেবে আর্থিক বিবরণীতে প্রকাশ না করে আইপিও সম্মতিপত্রের (পার্ট সি, প্যারা ৭) লঙ্ঘন করেছে।

বুকস অব অ্যাকাউন্টস সঠিকভাবে সংরক্ষণ না করায় আর্থিক বিবরণীতে ‘সঠিক ও যথাযথ তথ্য প্রতিফলিত না হওয়ার’ মাধ্যমে আইন ভঙ্গ করেছে ড্রাগন সোয়েটার।

এছাড়াও আইপিও ঘোষণা মোতাবেক ‘যন্ত্রপাতি ক্রয় না করায়, যথাসময়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন না করায়’ আইপিও সম্মতিপত্রের (পার্ট সি, প্যারা ৮) লঙ্ঘন করেছে।

মঙ্গলবারের কমিশন সভায়, ক্রিডেন্স ফার্স্ট শরিয়াহ ইউনিট ফান্ড নামে একটি মিউচুয়াল ফান্ডের খসড়া প্রসপেক্টাসের অনুমোদন দিয়েছে বিএসইসি।

মিউচুয়াল ফান্ডটির আকারের প্রাথমিক লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১০ কোটি টাকা। এর মধ্যে উদ্যোক্তা অংশ ১ কোটি টাকা এবং ৯ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে বিনিয়োগকারীদের জন্য। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে প্রতিটি ইউনিট বিক্রি করে এ অর্থ উত্তোলন করা হবে।

মিউচুয়াল ফান্ডটির উদ্যোক্তা ও সম্পদ ব্যবস্থাপক রয়েছে ক্রিডেন্স অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট এবং ট্রাস্টি ও কাস্টডিয়ান হিসেবে রয়েছে ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি)।

এদিকে রাইট প্রস্তাবের বিবরণীতে নীরিক্ষিত ত্রৈমাসিক হিসাব ‘যথাযথভাবে দাখিল’ না করায় ঢাকা ডায়িং ও তাদের রাইট ইস্যু ম্যানেজার সিটিজেন সিকিউরিটিজ অ্যান্ড ইনভেস্টমন্টে ও বিএমএসএল ইনভেস্টমেন্টকে সতর্কপত্র ইস্যু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

এর আগে ঢাকা ডায়িংয়ের রাইট ছাড়ার প্রস্তাব প্রত্যাখান করে বিএসইসি।

মার্জিন ঋণে অনিয়মসহ কয়েকটি আইন ভাঙার অপরাধে এম সিকিউরিটিজকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে বিএসইসি।