ভক্তকুলের বাণী বন্দনায় সরস্বতীকে অর্চনা

স্পন্দন ডেস্ক>
শিশুর হাতে চক খড়ির দীক্ষা আর ভক্তদের বন্দনায় সারা দেশে উদযাপিত হয়েছে সরস্বতী পূজা।
বিদ্যা ও জ্ঞান বৃদ্ধির আশায় মাঘ মাসের শুকা¬ পঞ্চমীতে এই পূজা করে সনাতন ধর্মাবলীরা। তাদের কাছে শ্বেত পদ্মে আসীনা সরস্বতী হলেন বিদ্যা, বাণী ও সুরের অধিষ্ঠাত্রী দেবী, যার হাতে আছে বীণা আর বই।
সারা দেশে বিভিন্ন মন্দিরের পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও ঐতিহ্যগতভাবে সরস্বতী পূজা অর্চনা হয়েছে। প্রতিনিধিদের রিপোর্টে বিস্তারিত-
যশোর : উৎসবমুখর পরিবেশে সোমবার যশোরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ঘরে ঘরে এককভাবে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল ৮টায় বিদ্যার দেবী সরস্বতীর প্রতিমা স্থাপন করা হয়। সকাল ৯টায় পূজা-অর্চনা শুরু হয়। পূজা শেষে ভক্তবৃন্দের মাঝে বিতরণ করা হয় প্রসাদ। পূজা শেষে সনাতন ধর্মের শিক্ষার্থীরা বিদ্যা অর্জনে দেবীর চরণে পুষ্প দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে। এ সময় পুরোহিত উপস্থিত ভক্তবৃন্দ ও শিক্ষার্থীদের মাঝে অঞ্জলি প্রদান করেন। এ সময় পূজা মন্দির বা মণ্ডপগুলোতে হিন্দু ধর্মীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। এছাড়া পূজা মণ্ডপগুলো দৃষ্টিনন্দন করতে সাজানো হয় অপূর্ব সাজে। অনেক স্থানে তৈরি করা হয় তোরণ। যশোর শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে উলে¬খযোগ্য হলো যশোর সরকারি এমএম কলেজ, যশোর সরকরি মহিলা কলেজ, যশোর সরকারি সিটি কলেজ, ডা. আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজ, এমএসটিপি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এণ্ড কলেজ ও যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়াও হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রায় প্রতিটি ঘরে এবং সার্বজনীনভাবে সরস্বতী পূজার আয়োজন করা হয়। সবমিলিয়ে বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা উপলক্ষে হিন্দু সম্প্রদায় বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের মাঝে ছিল উৎসবের আমেজ। পূজা শেষে সন্ধ্যায় অনেক প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হয়েছে। তবে অনেক প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হবে বছরান্তে।
এদিকে, যশোর সরকারি এমএম কলেজে সরস্বতী পূজায় উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু তালেব মিয়া, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল কাওসার, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক এআইএম শরীফ হোসেন, প্রফেসর শৈলেশ কুমার, এমএসটিপি গার্লস স্কুল এন্ড কলেজে সরস্বতী পূজায় উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ খায়রুল আনাম, শিক্ষক জগদীশ দাসসহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।
ডা. আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজের পূজায় উপস্থিত ছিলেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র, উপপরীক্ষা নিয়ন্ত্রক সমীর কুমার কুণ্ডু, কলেজ পরিদর্শক অমল কুমার বিশ্বাস, অধ্যক্ষ জেএম ইকবাল হোসেনসহ অন্যান্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।
এছাড়া যশোর সরকারি মহিলা কলেজে সরস্বতী পূজা উদযাপনের লক্ষ্যে বাণী অর্চনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. এম. হাসান সরোওয়ার্দীর নেতৃত্বে কলেজের সকল শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মচারী এতে অংশগ্রহণ করেন। সকাল ১০টায় পূজা অর্চনার আয়োজন করা হয়। এরপর কলেজের সকল শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং কর্মচারীদের নিয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন কলজের অধ্যক্ষ, শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক মাহবুবুল হক খান, উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা প্রফেসর অমল কৃষ্ণ বিশ্বাস (অধ্যাপক, ইংরেজি) আহ্বায়ক, স্বপন কুমার বসু, ভারতী রানী হালদার, শুভাশীষ মজুমদার, দ্বীপাঞ্জন পাল, কানাইলাল শর্মা, দীপ্তি মিত্র, তন্বী রানী মন্ডল।
পূজা অর্চনায় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. এম হাসান সরোওয়ার্দী দেশের সকল সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শুভেচ্ছা জানান।
যশোর মেডিকেল কলেজ : যশোর মেডিকেল কলেজে অনুষ্ঠিত হয়েছে সরস্বতী পূজা। কলেজের নিজস্ব ক্যাম্পাসে দ্বিতীয়বারের মত সাড়ম্বরে অনুষ্ঠিত হয় আরাধনা । সকালে পূজাকে ঘিরে বিভিন্ন রঙের পোশাক পরে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা সমবেত হয় ক্যাম্পাসে। পুষ্পাঞ্জলি নিবেদনের পর আলোচনা অনুষ্ঠান হয়। কলেজের সাবেক অধ্যাপক নিকুঞ্জ বিহারী গোলদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজ ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডাক্তার এমএ শামসুল আরেফিন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও জেলা বিএমএর সভাপতি ডা. একেএম কামরুল ইসলাম বেনু।
আরো উপস্থিত ছিলেন, কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ডা. সুদেশ চন্দ্র রক্ষিত, ডা. হিমাদ্রী শেখর সরকার, ডা. ইলাবতি মন্ডল, ডা. অজয় কুমার সরকার, সহকারী অধ্যাপক ডা.কাজল কান্তি দাঁ, ডা. প্রকাশ চন্দ্র মজুমদার, ডা. মনিকা রানী মোহন্ত, প্রভাষক ডা. সুমি দে, ডা. অরুপ জ্যোতি ঘোষ, ডা.সীমা সাহা, ডা. বাবলু কিশোর বিশ্বাস, ডা. কেয়া তরফদার, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি পার্থ সরকার, সাধারণ সম্পাদক সুব্রত দেবনাথ প্রমুখ। সন্ধ্যায় মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে পূজার সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়।
বসুন্দিয়া(যশোর): বসুন্দিয়া স্কুল এন্ড কলেজ বিদ্যা সুরেশ্বরী দেবীর পূজা উদযাপিত হয়েছে। হিন্দু ধর্মাবলম্বী শিক্ষক শিক্ষিকা ছাত্র-ছাত্রী পূজা অর্চনা প্রার্থনাসহ প্রসাদ বিতরণ করেন। অনুষ্ঠান শুধু ছাত্র ছাত্রী নয় এলাকার হিন্দু ধর্মাবলম্বীরাও ছূটে আসেন। অধ্যক্ষ পল্লব কান্তি ঘোষ জানান শুধু শিক্ষার্থীদের নয় সরস্বতী দেবী বিদ্যা বুদ্ধি জ্ঞানের আলো দানকারী।
দেবহাটা : দেবহাটা উপজেলার বিভিন্ন বাসভবন ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি উপজেলা ফুটবল মাঠে স্বাড়ম্বরে পূজা হয়। মন্ত্র উচ্চারণ দেবীর চরণে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ, আরতি আরাধনা, প্রসাদ আস্বাদন ও নানা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাণী অর্চনা হয়। দেবহাটা ফুটবল মাঠ পূজা উদযাপন কমিটির নেতৃবৃন্দ রামকৃঞ্চ দত্ত, বরুন সোম, অনিক দত্ত, বিশ^জিৎ আচার্য্য, গৌরাঙ্গ ঘোষ, গোপাল গোস্বামী, সুদীপ্ত মন্ডল, অর্পন দত্ত প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
কয়রা : কয়রায় ৬৫৬টি পূজা অনুষ্ঠিত হয়। কয়রা সার্বজনীন শ্রীশ্রী সনাতন ধর্ম মন্দির কমিটির আয়োজনে সোমবার সকাল ১১টায় বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা উদযাপিত হয়েছে। মন্দির কমিটির সভাপতি ডাঃ হরপ্রসাদ রায়ের সভাপতিত্বে ও পূজা আয়োজক কমিটির সাধারণ সম্পাদক তীর্থ রায়ের পরিচলনায় শ্যামস্মৃতি সংঘের সহযোগিতায় শতাধিক ভক্তবৃন্দের পদচারনায় পূজাম-প মুখরিত হয়ে ওঠে। দুপুর ১২টায় দেবীর চরণে পুস্পাঞ্জলী অর্পণ ও সাড়ে ১২টায় প্রসাদ বিতরণের মধ্য দিয়ে পূজা সমাপ্ত হয়।
ডুমুরিয়া : উপজেলার প্রতিটি স্কুল-কলেজ এবং অধিকাংশ বাসা বাড়িতে বিদ্যাদেবীর পূজা অর্চনায় মগ্ন ছিল হিন্দু ধর্মালম্বীদের অগণিত ভক্ত। ডুমুরিয়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় অঙ্গিনায় ছাত্রীরা পূজা অর্চনা করে। উলুর ধ্বনি আর ধুপের ধোঁয়ার সঙ্গে পূজা শেষে ভক্তরা পুষ্পাঞ্জলী দিয়ে প্রনাম জানায় বিদ্যাদেবীকে। পুজা শেষে ভক্তদের মাঝে প্রসাদ বিতরণ করা হয়। এছাড়া ব্যাপক আয়োজনে ডুমুরিয়া শহীদ স্মৃতি মহিলা কলেজ, উলা মৈখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, খর্ণিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মির্জাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, গুটুদিয়া এসিজিবি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, চেঁচুড়ী কে,বি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, গুটুদিয়া মঠ আশ্রম মন্দির ভিত্তির স্কুলসহ প্রায় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরস্বতী পুজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এদিকে বান্দা কলেজিয়েট স্কুল ও ডুমুরিয়া এনজিসি এন্ড এনসিকে মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরস্বতী পুজা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ গ্রহন করেন ডুমুরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান খান আলী মুনসুর।
চৌগাছা : চৌগাছায় পৌর এলাকার হালদারপাড়া নামযজ্ঞ মাঠে শ্রী শ্রী রাধাগোবিন্দ মন্দিরে পূজায় অংশ নেয় শিক্ষার্থী পবিত্র কুমার সিংহ, সমিক শিকদার, অপু সেন, অপু সেন, প্রান্ত রায়সহ বিভিন্ন বয়সের স্কুল শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও ঋষিপাড়া, আদিবাসিপাড়া ও ইছাপুর মন্দিরে পূজা-অর্চনা করা হয়। পূজায় স্কুল, কলেজ শিক্ষার্থীদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়।
ফকিরহাট : বাগেরহাটের ফকিরহাটে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ছাত্রছাত্রীদের গৃহ ও সর্বজনীন পূজামন্ডপে দেবী সরস্বতীর পূজা হয়। ফকিরহাটের আট্টাকী ঘোসপাড়ায় বন্ধু সংঘ উদ্যোগে তৃতীয় বার বিপুল উৎসব মূখর পরিবেশে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
পাইকগাছা : পাইকগাছা সরকারি কলেজে পূজা আর্চনা, অঞ্জলী প্রদান ও প্রসাদ বিতরণের মধ্যদিয়ে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে অধ্যক্ষ মিহির বরণ মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডঃ স ম বাবর আলী। উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার রায়, প্রাক্তন অধ্যক্ষ রমেন্দ্রনাথ সরকার, সহকারী অধ্যাপক প্রশান্ত কুমার বৈদ্য, বিনয় কুমার মন্ডল, তরুণ কান্তি মন্ডল, সোমা রায়, সুফল চন্দ্র মন্ডল, সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা শোভা রায়, মুক্তিযোদ্ধা সরদার মোহাম্মদ নাজিম উদ্দীন, শিক্ষক চুমকি রায়, সাংবাদিক এন ইসলাম সাগর ও শিবপদ মুখার্জী।
ফুলতলা : ফুলতলা রি-ইউনিয়ন স্কুল অ্যান্ড কলেজের উদ্যোগে সোমবার কলেজ অডিটরিয়ামে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ প্রফুল্ল কুমার চক্রবর্তীর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পরিচালনা কমিটির সদস্য মোল্যা হেদায়েত হোসেন লিটু, সহকারী প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন, খুখু কুন্ডু, সন্দিপন রায়, শ্যামলী দত্ত, নিরঞ্জন প্রসাদ বিশ্বাস, গোলাম কিবরিয়া, জিয়াউর রহমান প্রমুখ। আলকা মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক প্রশান্ত রায়ের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সরস্বতী পূজায় বিজয় কৃষ্ণ হালদার, জয়ন্তী গাইন, বাসুদেব শীল, শ্যামাপদ মন্ডল, রতন বিশ্বাস প্রমুখ। অনুরুপ ফুলতলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দেবী সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়।
কালিগঞ্জ(সাতক্ষীরা) : কালিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুবীর দত্ত সোমবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলা সদরে অবস্থিত রোকেয়া মনসুর মহিলা কলেজে অনুষ্ঠিত সরস্বতী পূজা পরিদর্শনে যান। এ সময় কলেজের অধ্যক্ষ একেএম জাফরুল আলম বাবু, রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি সহকারী অধ্যাপক নিয়াজ কওছার তুহিন, কালিগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাওন আহমেদ সোহাগ, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কালিগঞ্জ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. মিলন কুমার ঘোষ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অসীত সেন, কলেজের সহকারী অধ্যাপক ইন্দ্রজিত মন্ডল, প্রভাষক গোবিন্দ দুলাল বর, রতন ঘোষ, ক্রীড়া শিক্ষক সৈয়দ মাহমুদুর রহমান, অফিস সহকারী নিরোধ মন্ডলসহ কলেজের শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। প্রতি বছরের মত এবারও সর্ববৃহৎ সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে কালিগঞ্জের বিষ্ণুপুরে। বিষ্ণুপুর প্রান্তিক সংঘ ও বন্ধুমহল এর উদ্যোগে পৃথক ভাবে ২২ থেকে ২৮ জানুয়ারী পর্যন্ত প্রতিদিন পঞ্চমী মেলাসহ বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে।
কচুয়া : কচুয়া শহীদ শেখ আবু নাসের মহিলা ডিগ্রি কলেজে পূজা অনুষ্ঠিত হয়। সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসমিন ফারহানা পূজার উদ্বোধন করেন। দেবীর আরাধনা, অঞ্জলী প্রদান, প্রসাদ বিতরণ ও বিকেলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাজরা দেলোয়ার হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা সরোয়ার, প্রেসক্লাব সভাপতি তুষার রায় রনি, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শ্বাশতী এদবর, শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মানিক অধিকারী, অধ্যক্ষ মোঃ সাইফুল ইসলাম, কচুয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ রবিউল কবির, সহকারী অধ্যাপক আশুতোষ কুমার হালদার, মিলন মৈত্র, প্রভাষক যমুনা গোলদার, প্রভাষক সুযশ কান্তি মন্ডল, প্রভাষক অনুপ পাল, প্রভাষক গৈাতম মন্ডল, উপজেলা বিআরডিবি চেয়ারম্যান মীর আওসাফুর রহমান মারুফ, সাংবাদিক সমীর বরন পাইক, সাংবাদিক দিহিদার জাহিদুল ইসলাম বুলুসহ কলেজের শিক্ষক ও ছাত্রীবৃন্দ।