সড়ক সংস্কার না হলে দক্ষিণ বঙ্গের ১৮ রুটে যানবাহন চলাচল বন্ধের হুমকি

নিজস্ব প্রতিবেদক>
ছোট বড় গর্তের কারণে যশোরের সাতটি সড়ক-মহাসড়ক ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। প্রতিদিন প্রায় কোন না কোন সড়কে দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনা ঘটছে। বর্তমানে এসব সড়কে মারাতœক ঝুঁকির মধ্যে গাড়ি চলাচল করছে। ফলে গাড়ির যন্ত্রাংশ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে।
ঝুঁকিপূর্ণ এসব সড়ক মহাসড়ক সংস্কারের দাবি জানিয়ে বুধবার যশোর মিনিবাস ও বাস মালিক সমিতি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। এ সময় নেতৃবৃন্দ আন্দোলনের হুমকি দিয়ে বলেন স্মারকলিপি দেয়ার ১ মাসের মধ্যে সড়ক সংস্কার করা না হলে মার্চ মাস থেকে যশোর হতে দক্ষিণবঙ্গের ১৮টি রুটে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ মো. আলী আকবর।
তিনি জানান, যশোর-খুলনা মহাসড়ক, যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক, যশোর-মাগুরা মহাসড়ক, যশোর-ঝিনাইদহ আঞ্চলিক মহাসড়ক, যশোর-নড়াইল সড়ক, যশোর-চৌগাছা সড়ক এবং যশোর রাজারহাট-মঙ্গলকোট সড়কে বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করায় এ সড়কগুলো এখন গাড়ি চলাচলের অনুপযোগী ও চরম ঝুঁকিপূর্ণ। এসব সড়কে গাড়ি চালাতে গিয়ে যানবাহন ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনের পরিবহন মালিকদের এ কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছে দক্ষিণাঞ্চলের বৃহত্তম শ্রমিক সংগঠন বাংলাদেশ পরিবহন সংস্থা শ্রমিক সমিতি।
সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক মোত্তর্জা হোসেন বলেন, ‘যশোর জেলার সড়কগুলো অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। বর্ষা মৌসুমে যানবাহন চলাচলের কোন উপায় থাকেনা। বর্তমানে সড়কের যেখানে সেখানে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তাই সড়কগুলো গাড়ি চলাচলে উপযোগী করে তুলতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত অন্যান্য নেতৃবৃন্দ সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে জানান, সড়কগুলো সংস্কারের দাবি জানিয়ে সড়ক মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দপ্তরে একাধিকবার স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। কিন্তু কোন সাড়া মিলছেনা। বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) আবারো স্মারকলিপি পাঠানো হবে। আগামি এক মাসের মধ্যে সড়কগুলো সংস্কার করা না হলে কঠোর আন্দোলনের যাওয়ার হুমকি দিয়ে বলেন, যশোর হতে দক্ষিণবঙ্গের ১৮টি রুটে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে। এটিই তাদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রমেন্দ্রনাথ মন্ডল, সহসাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার কুন্ডু, বাংলাদেশ পরিবহন সংস্থা শ্রমিক সমিতির মামুনুর রশিদ বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক মো. মোর্তজা হোসেন, সহসভাপতি শাহিদ হোসেন জনি, সহসাধারণ সম্পাদক মিন্টু গাজী প্রমুখ।