চুড়ামনকাটিতে শিক্ষক ছুরিকাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোর সদর উপজেলার চুড়ামনকাটিতে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে এক শিক্ষক জখম হয়েছেন। শনিবার রাত ৮টার দিকে ছাতিয়ানতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতের নাম মোজাম্মেল হক (৩৩)। তিনি ছাতিয়ানতলা গ্রামের সর্দারপাড়ার আশরাফ আলীর ছেলে। মোজাম্মেল ওই মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক। তাকে গুরুতর অবস্থায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহতের ভাই হোছেন আলী দৈনিক স্পন্দনকে জানান, ঘটনার রাতে তার ছোট ভাই মোজাম্মেল হক চুড়ামনকাটি বাজার থেকে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলো। পথিমধ্যে তার কর্মস্থল ছাতিয়ানতলা চুড়ামনকাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে পৌঁছালে কয়েকজন দুর্বৃত্ত তার উপর হামলা চালায়। দুর্বৃত্তরা প্রথমে তার মাথায় আঘাত করলে মোজাম্মেল মাটিতে পড়ে যান। তখন দুর্বৃত্তরা টেনে হেচড়ে এক পাশে নিয়ে মোজাম্মেল হককে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে জখম করে। তার চিৎকারে লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। হোছেন আলী আরো জানান, কারা হামলার সাথে জড়িত তা মোজাম্মেল হকের সাথে কথা বলে জানা যাবে।
স্বজনদের দাবি, কয়েক মাস আগে ছাতিয়ানতলা চুড়ামনকাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফজলুর রহমানকে স্থানীয় একটি চক্র বেধড়ক মারপিট করে। হামলাকারীদের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলাও হয়। এ ঘটনার সাথে জড়িত হামলাকারীদের আটকের দাবিতে বিভিন্ন আন্দোলন কর্মসূচিও পালিত হয়। ওই আন্দোলনে প্রথম সারিতে ছিলেন মোজাম্মেল হক। যে কারনে সন্ত্রাসীরা তার উপর ক্ষুব্ধ ছিল। এরই জের ধরে তিনি ছুরিকাহত হতে পারেন। হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক ওয়াহিদুজ্জামান জানান, আহত মোজাম্মেল হকের অবস্থা গুরুতর। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাতে চিহ্ন রয়েছে। তার বুকের আঘাত দুটি মারাতœক। এক্সরে করার পর ওই আঘাত দুটি কতটুকু গুরুতর তা নিশ্চিত হওয়া যাবে।