‘বিএনপি খালেদাকে উন্মাদ, দেউলিয়া ও দুর্নীতিবাজ বানিয়েছে’

স্পন্দন নিউজ ডেস্ক :
‘বিএনপি খালেদাকে উন্মাদ, দেউলিয়া ও দুর্নীতিবাজ বানিয়েছে’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপির গঠনতন্ত্রের ৭ ধারা এখন কোথায়? রাতের আঁধারে কলমের খোঁচায় গায়েব হয়ে গেছে। কারণ ৮ ফেব্রুয়ারি। তাদের অনেক ভয়। তারা তো জানে এতিমদের টাকা কোথায় গেছে। তাদের ৭ ধারা অনুযায়ী কেউ উন্মাদ হলে, দেউলিয়া বা দুর্নীতিবাজ হলে দলের এমপি, নেতা এমনকি সদস্যও হতে পারবেন না। ৮ তারিখে রায় হবার আগেই বিএনপি খালেদা জিয়াকে উন্মাদ, দেউলিয়া ও দুর্নীতিবাজ বানিয়েছে। রাতের আঁধারে তাদের গঠনতন্ত্র থেকে ৭ ধারা বাদ দিয়েছে। কারণ তারা জানতো। নির্দোষ কি দোষী- সেটা আদালত নির্ধারণ করার আগেই বিএনপি এই ৭ ধারা বাদ দিয়ে প্রমাণ করলো ঠাকুর ঘরে কে রে, আমি কলা খাই না। বিএনপি একটি দেউলিয়া দল। তাদের ঘরে গণতন্ত্র নেই। না হলে তারা ২ বছর পর কমিটি করতে লা মেরিডিয়ান হোটেলে, যেখানে আমার কর্মীদের যাওয়ার সাহসও নেই, সেখানে মিটিং করেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘৮ই ফেব্রুয়ারি বেগম খালেদা জিয়ার মামলার রায়কে কেন্দ্র করে বিভিন্নভাবে উত্তেজনা ছড়ানো হচ্ছে না। আমরা (আওয়ামী লীগ) পরিষ্কার করে বলতে চাই আমরা কোনো প্রকার পাল্টাপাল্টিতে যেতে চাই না। আমাদের মাথা ঠাণ্ডা রাখতে হবে। শেখ হাসিনা আমাদের কোনো কর্মসূচি দিতে বলেননি। আমাদের কোনো কর্মসূচি নেই। তবে রায়কে কেন্দ্র করে যদি পরিস্থিতি কেউ অশান্ত করার চেষ্টা করে, যদি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়, তাহলে আমরা সতর্ক অবস্থানে থাকবো।’

রোববার বিকেলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

কাদের বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সবধরনের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করবে। আমাদের কোনো অসুবিধা নেই। ভরা কলসি নরবার দরকার নেই। সারাদেশের সবাই শেখ হাসিনার উন্নয়নের অর্জনে মহাখুশি। বিএনপিকে নিয়ে আওয়ামী লীগে কোনো অস্থিরতা নেই। আমরা অনেক এগিয়ে গেছি। বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছি। আমাদের আছে পদ্মা সেতু, পায়রা বন্দর, ফ্লাইওভার, বাস র‍্যাপিড ট্রানজিট, ঢাকা-চট্টগ্রাম, গাজীপুর-রংপুর ফোরলেন হাইওয়ে। কী আছে বিএনপির? আমরা পরমাণু ক্লাবে যোগ দিয়েছি। ৩২ নম্বর সদস্য। বিএনপি একটা কাজও দেখাতে পারবে না, যেটা দেখিয়ে তারা ভোট চাইতে পারবে। তাই বিএনপিকে নিয়ে ভয়ের কিছু নেই। শেখ হাসিনার জনগণের উপর আস্থা আছে। বিএনপি মানুষকে ভালোবাসে না। বিএনপি ভালোবাসে ক্ষমতাকে। শেখ হাসিনার লক্ষ্য বাংলাদেশের উন্নয়ন। খালেদা জিয়ার লক্ষ্য যেনতেনভাবে ক্ষমতায় আসা। আমরা এগিয়ে আছি। শেখ হাসিনার ঘুম ভাঙে ভোর ৫টায় (ক্ষমতায় থাকলেও, না থাকলেও)। আর বিএনপির সকাল হয় ১১টায়। আমরা প্রতিদিন ৬ ঘণ্টা এগিয়ে আছি। বিএনপি আমাদের ধরতে পারবে না।’

তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, লন্ডন থেকে হাওয়া ভবনের যুবরাজ শব্দ বোমা ছুড়ে দিয়েছে। জেল-জুলুমের বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে বলেছে। অথচ নিজেই পালিয়ে আছে লন্ডনে। সে পলাতক। ফেরারি। দেশের ভেতর আন্দোলন করার সৎ সাহস যার নেই, তার নেতা হবার অধিকার নেই।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ আয়োজিত সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীসহ ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট এবং সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু প্রমুখ।