‘৯৮ ভাগ বিদেশি ক্রিকেটার পাকিস্তানে খেলতে রাজি’

ক্রীড়া প্রতিবেদক  : ফেব্রুয়ারির ২২ তারিখ থেকে শুরু হচ্ছে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। নিরাপত্তার কারণে দেশটির ঘরোয়া এ টি-টুয়েন্টি লিগটি অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে দুবাই ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে। তবে দ্বিতীয় আসরের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছিল লাহোরে। আসন্ন তৃতীয় আসরের প্লে অফ ও ফাইনালও অনুষ্ঠিত হবে পাকিস্তানের করাচি ও লাহোরে। এ পরিস্থিতিতে পিএসএল খেলতে ৯৮ পার্সেন্ট বিদেশি ক্রিকেটার পাকিস্তানে যেতে রাজি বলে জানিয়েছেন করাচি কিংসের মালিক সালমান ইকবাল।

এর আগের আসরগুলোতে নিরাপত্তার কারণে বিদেশি খেলোয়াড়রা পাকিস্তানে আসতে অনাগ্রহী ছিল। তবে ২০১৭ সালের পর থেকে এ প্রবণতা অনেকটাই কমে আসছে। গেল বছর বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলতে বেশ কয়েকজন বিদেশি খেলোয়াড় পাকিস্তানে এসেছিল। এছাড়া পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের অনুরোধে শ্রীলঙ্কাও পাকিস্তান সফরে গিয়েছে। এর ফলে মনে করা হচ্ছে দেশটির নিরাপত্তা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

বুধবার করাচি কিংসের অফিসিয়াল সামগ্রীর উদ্বোধনকালে ফ্র্যাঞ্চাইজিটির মালিক সালমান বলেছেন, তার দলের সব বিদেশি খেলোয়াড় পাকিস্তানে খেলতে সম্মতি জানিয়েছেন, যদি কিংস ফাইনালে ওঠে। তার কথায়, ‘আমাদের ৭ জন খেলোয়াড়ের (বিদেশি) মধ্যে ৬ জনই পাকিস্তানে খেলতে আগ্রহী। এটা আমাদের সবার জন্য ভালো খবর। খেলোয়াড়রা দেশে আসতে সম্মত হয়েছেন এবং আমরা আশা করি সবকিছু ভালো ভাবেই হবে।’

তিনি আরো দাবি করেছেন, অন্য ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর অবস্থাও একই রকম। সব মিলিয়ে ৯৮ পার্সেন্ট ক্রিকেটার লাহোর ও করাচিতে খেলতে রাজি হয়েছেন। বাকি ক্রিকেটাররাও শীঘ্রই রাজি হবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করছেন।