ব্যস্ততা ঝিনাইদহের ফুলবাজারে

টিপু সুলতান, কালীগঞ্জ>১৪ ফেব্রুয়ারি ভালবাসা দিবসকে সামনে নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন ঝিনাইদহের ফুলকন্যারা। বছরের বাংলা ও ইংরেজি নববর্ষ, স্বাধীনতা দিবস, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও ভালবাসা দিবসে তাদের ব্যস্ততা থাকেই।
ঝিনাইদহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় মাঠের পর মাঠ চাষ হয়েছে গাঁদা, রজনীগন্ধা, গোলাপ ও গ্লাডিয়াসসহ নানা জাতের ফুল । এসব ক্ষেত থেকে ফুল সংগ্রহ, মালা গাথা, প্যাকেজিংসহ যাবতীয় কাজ করে মেয়েরা। যাদের স্থানীয়ভাবে ফুল কণ্যা বলা হয়। এ এলাকার উৎপাদিত ফুল প্রতিদিন দূরপাল্লার পরিবহনে চলে যাচ্ছে ঢাকা, চট্রগ্রাম, সিলেটসহ দেশের বড় বড় শহর গুলোতে।
ঝিনাইদহ কালীগঞ্জ উপজেলার ফুলনগরী বলে খ্যাত বালিয়াডাঙ্গার ফুলকণ্যা আয়েশা বেগম ও জরিনা খাতুন জানায়, বছরের বারো মাসই ফুল তোলাও মালা গাথার কাজ করি। কিন্তু বিশেষ বিশেষ দিন সামনে রেখে কাজ একটু বেশি করতে হয়। এখন সাসনে ভালবাসা দিবস তাই প্রতিদিন সকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করতে হচ্ছে।
ঝিনাইদহ ও কালীগঞ্জ কৃষি অফিস জানায়, এ বছর ঝিনাইদহ জেলায় প্রায় ৪শ হেক্টর জমিতে ফুল চাষ হয়েছে। উৎপাদন ব্যয় কম, আবার লাভ বেশি হওয়ায় কৃষকরা ক্রমান্বয়ে ফুল চাষে আগ্রহী হচ্ছেন।

বালিয়াডাঙ্গা বাজার, কোলাবাজার ও কালীগঞ্জের বাস টার্মিনালে দেখা যাচ্ছে দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত শত শত কৃষক তাদের ক্ষেতের উৎপাদিত ফুল ভ্যান, ও ইঞ্জিন চালিত বিভিন্ন পরিবহন যোগে নিয়ে আসছেন। বেলা গড়ানোর সাথে সাথে বালিয়াডাঙ্গা বাজার ও কালীগঞ্জ মেইন বাস ষ্ট্যান্ড ভরে যাচ্ছে লাল, সাদা আর হলুদ ফুলে।