ইসরায়েলি সেনাকে থাপড়ানো সেই ফিলিস্তিনি কিশোরীর বিচার শুরু

নিউজ ডেস্ক>ইসরাইলের এক সেনাকে চড় মেরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঝড় তোলা সেই ফিলিস্তিনি কিশোরী আহেদ তামিমির বিচার শুরু হয়েছে।

ইসরায়েলের সামরিক আদালতে ১৭ বছর বয়সী তামিমির বিচার চলছে। তার বিরুদ্ধে নিরাপত্তা বাহিনীকে অপমান এবং সহিংসতার উস্কানি দেওয়াসহ ১২টি অভিযোগ আনা হয়েছে।

দোষী সাব্যস্ত হলে তার দীর্ঘমেয়াদী কারাদণ্ড হতে পারে। মামলাটিকে ঘিরে জনমতে বিভক্তি দেখা দিয়েছে।

ফিলিস্তিনিরা তামিমির দুঃসাহসকে ইসরায়েলের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ স্বরূপ দেখছে। তাদের কাছে সে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের প্রতীক হয়ে উঠেছে।

অন্যদিকে, ইসরায়েলিদের ভাষ্য, জনপ্রিয়তা পেতে তামিমি সহিংসতার আশ্রয় নিয়েছে।

তামিমি তার পরিবারের সঙ্গে অধিকৃত পশ্চিম তীরের ফিলিস্তিন গ্রাম নবি সালেহতে বসবাস করেন। গতবছর ১৫ ডিসেম্বর মায়ের সঙ্গে বাড়ি যাওয়ার পথে ইসরায়েলি সেনারা তাদের পথরোধ করে।

দুইপক্ষের বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে তামিমি এক সেনাকে প্রথমে লাথি মারেন এবং পরে গালে সপাটে চড় মেরে বসেন। দ্বিতীয় আরেক সেনাকেও সজোরে একাধিকবার ঘুষি মারেন তিনি।

তার মা নারিমান তামিমি পুরো ঘটনাটি ভিডিও করেন এবং ফেইসবুক পাতায় পোস্ট করেন। সঙ্গে সঙ্গেই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

এ ঘটনার কয়েকদিন পর এক রাতে অভিযান চালিয়ে তামিমিকে গ্রেপ্তার করে ইসরায়েলি সেনারা। তার মা এবং ভিডিওতে থাকা তার এক কাজিনকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

ইসরায়েলের শিক্ষামন্ত্রী নাফতালি বেনেত বলেন, তামিমি ও তার মা যা করেছে তাতে তাদের ‘আজীবন কারাবাস প্রাপ্য’ হয়ে গেছে।

তামিমির এমন কান্ড নতুন নয়। দুই বছর আগেও পাথর ছোড়ার অভিযোগে ভাইকে ধরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা এক ইসরায়েলি সেনার হাত কামড়ে ধরেছিলেন তামিমি। ওই ভিডিওটিও ভাইরাল হয়।

সেবার তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিজেপ তায়েপ এরদোয়ান তার প্রশংসা করেন এবং এ ‘সাহস’ দেখানোর জন্য পুরস্কৃত করেন।

এমনকি মাত্র ১১ বছর বয়সে ঘুষি বাগিয়ে এক ইসরায়েলি সেনার দিকে এগিয়ে যাওয়ার তামিমির ভিডিওটিও ভাইরাল হয়।

অনেক ইসরায়েলির অভিযোগ, তামিমিকে ব্যবহার করে তার পরিবার ইসরায়েলের সেনাদের বিরুদ্ধে ইচ্ছা করে উস্কানিমূলক ভিডিও তৈরি করে।

ফিলিস্তিনি শিশুদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণের অভিযোগ তুলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল তামিমিকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।