সংবাদ সম্মেলনে দাবি> যশোর বকচরের ভাঙড়ি ব্যবসায়ীরা চোরাই গাড়ি সিন্ডিকেটের সদস্য নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোর শহরের বকচর এলাকার পুরাতন লোহা ও ভাঙড়ি ব্যবসায়ীরা কোন চোরাই গাড়ি সিন্ডিকেটের সদস্য নয়। যে সব যানবাহন রাস্তায় চলাচলের অনুপযোগী সেগুলো মালিকদের কাছ থেকে কিনে প্রকাশ্য ভেঙে বিক্রি করা হয়। যশোর থেকে প্রকাশিত একটি পত্রিকায় বকচরে চোরাই গাড়ি শিরোনামে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। সংবাদের ভিতরে সমিতির যাদের নাম দেয়া হয়েছে তাদের কেউ চোরাই গাড়ি সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত নয়। মঙ্গলবার বিকেলে সমিতির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জনিয়েছেন নেতৃবন্দ।
এসময় উপস্থিত ছিলেন যশোর পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজিজুল ইসলাম, সমিতির সভাপতি হাফিজুর রহমান বটু, সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ পরাণ, কোষাধ্যক্ষ লাল্টু গাজী, প্রচার সম্পাদক ফারুক মিস্ত্রি প্রমুখ।
সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ পরাণ লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ৭ ফেব্রুয়ারি যশোর থেকে প্রকাশিত দৈনিক গ্রামের কাগজে বকচর গ্যারেজে চোরাই গাড়ি শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এ সংবাদের এলাকার বেশ কিছু ব্যবসায়ীদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।
তিনি বলেন, বকচর এলাকার পুরাতন লোহা ও ভাঙড়ি কল্যাণ সমিতির সদস্যরা অত্যন্ত সুনামের সাথে দীর্ঘদিন ধরে স্ক্রাপ গাড়ি ক্রয় করে যন্ত্রাংশ খুলে খুচরা বিক্রি করেন। এখানে কোন চোরাই গাড়ি বেচাকেনা করা হয় না। একটি কুচক্রী মহল সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ওই সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে। আমি সমিতির সদস্যদের পক্ষে এ সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সাংবাদিকদের এ ধরনের মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকার আহবান জানাচ্ছি। একই সাথে গাড়ি চোর সিন্ডিকেটের সদস্যদের সনাক্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আইন প্রয়োগকারি সংস্থাকে অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।