যশোর ইনস্টিটিউট নির্বাচনে সংষ্কার ও উন্নয়ন সমিতির ইশতেহার

নিজস্ব প্রতিবেদক:
যশোর ইনস্টিটিউট পরিচালনা পর্ষদের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনকে সামনে রেখে সংষ্কার ও উন্নয়ন সমিতির ইশ্তেহার ঘোষণা করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে গুরুদাস বাবু লেনস্থ সমিতির অস্থায়ী কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এই ইশ্তেহার প্রকাশ করা হয়। সংস্কার ও উন্নয়ন সমিতির পক্ষে ইশ্তেহার পাঠ করেন যশোর ইনস্টিটিউট পরিচালনা পর্ষদের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক শেখ রবিউল আলম।
ইশ্তেহারের মধ্যে রয়েছে সদস্যদের ডিজিটাল পদ্ধতিতে চাঁদা পরিশোধের ব্যবস্থাকরণ, টাউন হল মাঠে মেলা নয়, সকলের সম্মতিতে মেলা অন্য মাঠে স্থানান্তরিত করে টাউন হল মাঠকে বিনোদন কেন্দ্রে রূপ দেয়া। ই-লাইব্রেরিকে আরো সমৃদ্ধ করা হবে, ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি চালু, তসবীর মহলের স্থান এবং মূল অবকাঠামো ঠিক রেখে মার্কেট নির্মাণ, ভবন সমূহের উন্নয়নসহ উর্ধ্বমূখী সম্প্রসারণসহ পত্রিকা ও বই পাঠের জায়গা বিস্তৃতকরণ, গোডাউন পুনঃনির্মাণ করে তার উপর টেবিল টেনিস খেলার ব্যবস্থা করা, গ্যারেজ নির্মাণ, বিদ্যুতের বিকল্প হিসেবে সোলার প্যানেলের ব্যবস্থাকরণ, স্বাধীনতা মঞ্চকে আধুনিককরণ, বিষয়ভিত্তিক বার্ষিক সম্মাননা প্রদান, নাট্যকলা বিভাগে বিশেষজ্ঞদের এনে প্রযোজনা ভিত্তিক কর্মশালার আয়োজন, টাউন ক্লাবকে খেলোয়াড় তৈরির সূতিকাগার হিসেবে গড়ে তোলার কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ, সিআরসিকে যথাযথ শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার পদক্ষেপ, ইনস্টিটিউটের আয়বৃদ্ধি ও সম্পদ রক্ষায় কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ, বই ব্যাংকের চতুর্থতলায় সংস্কৃতি মিউজিয়াম প্রতিষ্ঠা, ময়দানের উত্তরাংশ দখলমুক্ত করে সবুজায়নসহ সৌন্দর্যবর্ধন করা।
যশোর ইনস্টিটিউটের দ্যুতিতে আলোকিত সমাজ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে শেখ রবিউল আলম বলেন, সংস্কার ও উন্নয়ন সমিতির গতিশীল নেতৃত্বে আধুনিক ও গণমুখী যশোর ইনস্টিটিউট বিনির্মাণে সংস্কার, উন্নয়ন, কল্যাণমুখী কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়নে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
যশোরবাসীর গর্বের এ প্রতিষ্ঠানটির উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সংস্কার ও উন্নয়র সমিতির প্যানেলের ১ থেকে ২০ নম্বর পর্যন্ত সকল প্রার্থীকে বিজয়ী করতে ইনসটিটিউটের সকল সম্মানিত ভোটারের প্রতি বিনীত আহবান জানানো হয়।
এতে সভাপতিত্ব করেন সমিতির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক আলী আকবর। উপস্থিত ছিলেন সমিতির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য মোকসিমুল বারী অপু, সাকির আলী প্রমুখ।
সমাপনী বক্তব্যে প্যানেল প্রধান ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ বলেন, যশোরবাসীর প্রিয় প্রতিষ্ঠান ‘যশোর ইনস্টিটিউট’। তাই এ প্রতিষ্ঠানের অগ্রযাত্রা ধরে রাখতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এ লক্ষ্যে তিনি সংস্কার ও উন্নয়ন কমিটি’র পক্ষে ইনস্টিটিউটের সম্মানিত সদস্যদের সমর্থন, পরামর্শ ও সহযোগিতা প্রার্থনা করেন।
উপস্থিত ছিলেন প্রার্থী শেখ রাকিবুল আলম জয়, আব্দুর রহমান কিনা, এস নিয়াজ মোহাম্মদ, অ্যাড. শাহরিয়ার বাবু, অ্যাড. মোয়াজ্জেম হোসেন টুলু, আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাড. দেবাশীষ দাস, আবদুস সবুর চাকলাদার নান্নু, এমএ আকসাদ সিদ্দিকি শৈবাল, মোস্তাফিজুর রহমান মুস্তাক, এসএম আজাহার হোসেন স্বপন, মিনারা খন্দকার, অ্যাড. চুন্নু সিদ্দিকী, রওশন আরা রাসু, এএম মহিউদ্দীন লালু, অ্যাড. আবু সেলিম রানা, অ্যাড. ইসহক, আহসান হাবীব পারভেজ ও কাসেদুজ্জামান সেলিম।