খুনীদের বিচার দাবিতে উদীচী হত্যাযজ্ঞ দিবস স্মরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক>
খুনীদের বিচারের দাবির মধ্যে দিয়ে মঙ্গলবার পালিত হয়েছে উদীচী হত্যাকান্ডের ১৯ তম বার্ষিকী। দিনটি স্মরণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান,আলোচনাসভা আর শহিদ বেদিতে বিভিন্ন সংগঠনের পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের সাথে আলোক প্রজ্জ্বলন কর্মসূচি পালন করা হয়। বিকেল ৫ টা ১ মিনিটে টাউনহল ময়দানের সেই স্মৃতিবহ স্থল রওশন আলী মঞ্চে পরিবেশিত হয় সমবেত কন্ঠে জাতীয় সঙ্গীত। পরে সাংগঠনিক ও গণসঙ্গীত পরিবেশিত হয়। আবৃত্তি করেন উম্মে মাফরোজা ও আব্দুল আফ্ফান ভিক্টর।
আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সরকার এখন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায়। এই সরকারকে সাংস্কৃতিক বান্ধব সরকার হিসেবেই জানি। যুদ্ধাপরাধীর বিচার হচ্ছে তবে কেন জানি উদীচীর এই হত্যাকান্ডের ১৯ বছর পার হয়েছে অথচ তার বিচার হলোনা। নেতৃবৃন্দ বলেন মৌলবাদী কখনোই হত্যা করে হামলা করে আমাদের সঙ্গীত,নাটক আবৃত্তি, নৃত্যকে রুখতে পারবেনা। ’ঝরেছে রক্ত ঝরুক রক্ত আমরা হারবো না-সাথীদের খুনে রাঙা রাজপথ আমরা ছাড়বোনা’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে উদীচী যশোর আয়োজিত দিবসের এই আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহাবুবুর রহমান মজনু।
বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা কাজী আব্দুস শহীদ লাল, মুক্তিযোদ্ধা রবিউল আলম, যশোর ইনস্টিটিউটের সাধারণ সম্পাদক শেখ রবিউল আলম, সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি একরাম উদদ্দৌলাহ্, নারী নেত্রী হাবিবা শেফা, সিপিবি নেতা অ্যাড. আবুল হোসেন, সঙ্গীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদের আহবায়ক আবু সালেহ তোতা, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহানুর আলম শাহীন, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মাহামুদ হাসান বুলু, সাইফুজ্জামান মজু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট যশোরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তরিকুল ইসলাম তারু, মুক্তিযোদ্ধা আফজাল হোসেন দোদুল, রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ যশোরের সভাপতি শ্রাবনী সুর, শ্রমিক নেতা নাজিম উদ্দিন ও উদীচীর যশোরের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান খাঁন বিপ্লব। আলোচনাসভা শেষে শহিদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন বিভিন্ন সংঠনের নেতৃবৃন্দ। এসময় আগুনের পরশমনি সঙ্গীতের সাথে ১০ শহিদের স্মরণে আলোক প্রজ্জ্বলন করা হয়।