যশোর জয় বাংলা প্রথম বিভাগ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দ্বারপ্রান্তে রাহুল স্মৃতি

মারুফ কবীর>
যশোরে জয় বাংলা প্রথম বিভাগ ফুটবল লিগে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দ্বারপ্রান্তে রাহুল স্মৃতি সংসদ। টানা সাত জয়ে শিরোপার সুবাতাস পাচ্ছে তারা। ২১ পয়েন্ট নিয়ে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান তাদের। এবারের আসরে রাহুল স্মৃতি সংসদের আর মাত্র দুটি খেলা বাকি আছে। দুটি দলের মধ্যে একটি দলের সাথে জিততে পারলেই এবারের আসরে শিরোপা ঘরে তোলার সমুহ সম্ভাবনা রয়েছে রাহুল স্মৃতি সংসদের। ১৪ মার্চ টাউন ক্লাব ও ১৮ মার্চ নওয়াপাড়া খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতির বিরুদ্ধে খেলবে তারা। টাউন ক্লাব ছয় খেলায় মাত্র একটিতে জয় ও একটিতে ড্র করে ৪পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে অবস্থান করছে। অপর দল নওয়াপাড়া খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতি ছয় খেলার একটিতে জয় ও একটিতে ড্র করে নিচের সারিতে রয়েছে।
জেলা ফুটবল এসোসিয়েশন আয়োজিত শনিবার বিকেলে পুলিশ লাইন মাঠে অনুষ্ঠিত খেলাটিতে অংশ নেয় রাহুল স্মৃতি সংসদ ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। খেলা শেষের ৭ মিনিট আগে গোলযোগের কারনে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় পর্যন্ত খেলা গোলশূন্য ড্র ছিলো। শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের অতিরিক্ত খেলোয়াড় বর্ডার প্রতিপক্ষ রাহুল স্মৃতি সংসদের বিদেশী খেলোয়াড় ওকেজি ক্রিষ্টোপারকে টেন্ড থেকে সাইড লাইনে এসে প্রহার করে। পাশে থাকা পুলিশ লাইনের পুলিশের সাথে কথা কাটাকাটি হয় বর্ডারের। এক পর্যায়ে হাতাহাতির পর্যায়ে চলে যায় বিষয়টি। এতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয় মাঠে। পরে সহকারী পুলিশ সুপার(হেড কোয়াটার) জুয়েল ইমরান এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। তিনি বলেন, সৃষ্ট ঘটনার সাথে কোন পুলিশ জড়িত থাকলে প্রচলিত বিধি অনুযায়ি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর ধারনকৃত ভিডিও ফুটেজ দেখে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
এদিকে বাইলজের উপবিধি-২১ (আইন প্রয়োগ) অনুযায়ি শৃংখলা রক্ষার ক্ষেত্রে রেফারির নির্দেশ ছাড়াও পুলিশ ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারী সদস্য মাঠে প্রবেশ করে প্রচলিত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন , গ্রেফতার ও শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নিতে পারবেন।
পরিস্থিতি শান্ত হওয়ার পরেও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র খেলতে অসম্মতি জানায়। তারা আর মাঠে নামেনি। এ কারণে বাইলজের উপবিধি-১৩(গ) অনুযায়ি প্রতিপক্ষ রাহুল স্মৃতি সংসদ ২-০ গোলে জয়ী এবং পূর্ণ ৩ পয়েন্ট অর্জন করলো। একই বিধি অনুযায়ি শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের অর্জিত পয়েন্ট থেকে এক পয়েন্ট কর্তন করা হলো। গতকালকের খেলার রেফারি শফিকুল ইসলাম মিঠু বলেন, বাইলজ অনুযায়ি ১৫ মিনিট অপেক্ষার পর আমি শেষ বাশি বাজিয়েছি। এরপর বাইলজ অনুযায়ি সংশ্লিষ্ট কমিটি সিদ্ধান্ত নেবেন। এক্ষেত্রে বাইলজের উপবিধি-১৩ ( ঝ) অনুযায়ি রেফারির আমন্ত্রন জানানোর পরেও কোন দল খেলতে অসম্মতি জানালে রেফারি সর্বোচ্চ ১৫ মিনিট অপেক্ষা করার পর শেষ বাশি বাজিয়ে খেলার সমাপ্তি ঘোষনা করবেন। আর রেফারির রিপোর্টের ভিত্তিতে অভিযুক্ত ক্লাবকে উপবিধি-১৩ (গ) অনুযায়ি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
যশোর জেলা ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আসাদুজামান মিঠু বলেন, আমি এখন যশোরের বাইরে। বিষয়টি শুনেছি। এ বিষয়ে বাইলজ অনুযায়ি সিদ্ধান্ত হবে।
আজকের খেলা ঃ শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মঈন স্মৃতি সংসদ বনাম টাউন ক্লাব।