ডুমুরিয়ায় ঐতিহ্যবাহী বান্দায় ২৪ প্রহরব্যাপী মহানামযজ্ঞ অনুষ্ঠান সম্পন্ন

সুব্রত কুমার ফৌজদার, ডুমরিয়া >
দেশ মাতৃকা ও বিশ্বের মঙ্গল কামনায় ডুমুরিয়া উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বান্দা কলেজিয়েট স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত ২৪ প্রহরব্যাপী (১১তম বর্ষ) মহানামযজ্ঞানুষ্ঠান গতকাল সোমবার অরুণোদয় মুহূর্তে অখন্ড শ্রীশ্রী তারকব্রহ্ম মহানাম সংকীর্তন সমাপন, কুঞ্জভঙ্গ, দধিভঙ্গ, নগর কীর্তন এবং মধ্যাহ্নে শ্রীশ্রী মহাপ্রভুর ভোগ আরাধনা ও মহাপ্রসাদ বিতরণের মধ্যদিয়ে সম্পন্ন হয়। রাত ১১টায় পাইকগাছা নাট্য সংস্থার পরিবেশনায় ধমীয় যাত্রাপালা “জননী কৈকেয়ী” অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিকালে শুভ সূচনা সংগীতের সুরে শান্তি পতাকা উত্তোলন ও অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন স্থানীয় ভান্ডারপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ও নামযজ্ঞ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ডাঃ হিমাংশু বিশ্বাস। অনির্বাণ মঙ্গলদ্বীপ প্রজ্জ্বলন এবং ভাগবত আলোচনা করেন গল্লামারী রাধামাধব মন্দিরের অধ্যক্ষ গৌড়েশ্বর নিমাই দাস ব্রহ্মচারী, ইস্কন ইয়থ ফোরামের পরিচালক কাঞ্চন গোবিন্দ দাস ও ডুমুরিয়া সিনিঃ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সরোজ কুমার মিস্ত্রি। অধিবাস কীর্তন করেন হাজিবুনিয়া গ্রামের তুষার কান্তি বিশ্বাস এবং পূজারী সাধুচরণ ব্রহ্মচারী। নামামৃত পরিবেশন করেন গোপালগঞ্জের গোকুল কৃষ্ণ সম্প্রদায়, মিরা সম্প্রদায়, খুলনার শিশুকৃষ্ণ সম্প্রদায়, ভাইভাই সম্প্রদায়, প্রভু নিতাই সম্প্রদায়, রাজবাড়ীর শিব মন্দির সম্প্রদায় ও বাগেরহাটের আদি রামকৃষ্ণ সম্প্রদায়। যজ্ঞানুষ্ঠান পরিদর্শন করেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান খান আলী মুনসুর, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ ফায়েকুজ্জামান, খুলনা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মল্লিক সুধাংশু, বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ খুলনা জেলা শাখার সভাপতি কৃষ্ণপদ দাশ ও সাধারণ সম্পাদক রবীন্দ্রনাথ দত্ত। নামযজ্ঞ পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিমাংশু বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক সৌরীন্দ্রনাথ হালদার জানান, এবছর বান্দায় ব্যাপক আয়োজনে শান্তিপূর্ণভাবে নামযজ্ঞ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। প্রায় লাখো ভক্তবৃন্দের ঢলে বান্দা যজ্ঞভুমি মিলন মেলায় পরিণত হয়। ৩দিনের নামযজ্ঞানুষ্ঠানে ৬০ হাজারের বেশি ভক্তকে অন্ন প্রসাদ (খিচুড়ি) সেবা দেয়া হয়েছে।