যশোর বিডি হলের ভাড়া পুননির্ধারণের দাবিতে ১৯ সাংস্কৃতিক সংগঠনের স্মারকলিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোর জেলা পরিষদ মিলনায়াতনের (বিডি হল) ভাড়া সাংস্কৃতিক সংগঠনের জন্য পুন:নির্ধারণের দাবি জানানো হয়েছে। জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ব্যানারে ১৯টি সংগঠন বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর স্মারকলিপি দিয়ে এ দাবি জানান। স্মারকলিপি গ্রহণ করেন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল। মিলনায়তনের ভাড়া ১০ হাজার টাকার পরিবর্তে ২হাজার টাকা করার দাবি জানানো হয়েছে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুকুমার দাস, জেলা কমিটির সভাপতি ডিএম শাহিদুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার আলম খান দুলু, সুরধুনী যশোরের সভাপতি হারুণ অর রশীদ, সহ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম তারু, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মাহমুদ হাসান বুলু, উদীচী যশোরের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান খান বিপ্লব, আশাবরীর সভাপতি ড. সবুজ শামীম আহসান, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, চাঁদের হাট যশোরের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক এসএম আরিফুজ্জামান, স্বরলিপির অধ্যক্ষ নিবাস মন্ডল, সপ্তসুরের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মামা রফিক প্রমুখ।
উল্লেখ্য ১৯৬৫ সালে সরকারি অর্থায়নে যশোর জেলা পরিষদ মিলনায়তন নির্মাণ করা হয়। এরপর থেকে সরকারি-বেসরকারি সংস্থার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক দলগুলো অপেক্ষাকৃত কম ভাড়ায় বৃহদায়তন এ হলে বিভিন্ন অনুষ্ঠান করে আসছে। কিন্তু দীর্ঘ কয়েক বছর ভবনটি সংস্কার না করায় ব্যবহারের অনুপোযোগী হয়ে পড়ে। ছাদের বড়-বড় কংক্রিট ভেতরের সিলিংয়ের উপর ধসে পড়েছে। এতে সিলিং নষ্ট হয়ে যাওয়ার পাশাপাশি ছাদ ধসে পড়ার উপক্রম হয়। এ অবস্থায় দুর্ঘটনা এড়াতে এখানে প্রায় পাঁচ বছর ধরে সব ধরণের কার্যক্রম বন্ধ রাখা ছিল। সংস্কার কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালের ৭ এপ্রিল। এরপর সংস্কারের সকল কাজ সমাপ্ত করে ১ মে সকল সংগঠনের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। কিন্তু মিলনায়তনের ভাড়া নির্ধারণ করা হয় ১০ হাজার টাকা। যা যেকোন সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষে বহন করা দুঃসাধ্য।
তাই স্মারকলিপিতে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সাংস্কৃতিক রাজধানী যশোর জেলার সংস্কৃতি চর্চা অব্যাহত রাখার স্বার্থে শুধুমাত্র সাংস্কৃতিক সংগঠনের জন্য বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি যশোরের মিলনায়তনের ন্যায় জেলা পরিষদের মিলনায়তনের ভাড়া ২ হাজার টাকা করার দাবি জানান।