রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের পুনঃবিবেচনার দাবিতে গণসংহতি আন্দোলন যশোরের সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক>
রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের পুনঃবিবেচনার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে গণসংহতি আন্দোলন যশোর। শনিবার সকালে সংগঠনের জেলা কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের জেলা সমন্বয়ক চিন্ময় গোস্বামী পাপ্পু সভাপতিত্ব করেন। সম্পাদক মামুন হোসেন, ছাত্র ফেডারেশনের যশোর জেলা সভাপতি অনিমেশ বাছাড় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এসময় বক্তারা বলেন বাংলাদেশের সংবিধানের ৩৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সকল নাগরিকের সংগঠন করার অধিকার স্বীকৃত। আবার ৬৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সকল নাগরিকের নির্বাচিত হবার অধিকার রয়েছে। নির্বাচন কমিশনের কাজ এই অংশগ্রহণ যাতে বিনা বাধায় ও বৈষম্যহীনভাবে হতে পারে তার ব্যবস্থা করা। কিন্তু আমরা দেখছি নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধন আইনে শর্তগুলো এমনভাবে ঠিক করা হয়েছে যাতে করে মনে হতে পারে সকল নাগরিকের রাজনীতি করার ও দল গঠন করার সাংবিধানিক অধিকারকে বাস্তবায়ন নয় বরং তাতে নানা বাধা-বিপত্তি তৈরিই এই বিধিমালার উদ্দেশ্য। বক্তারা আরো বলেন সরকার দেশের সকল স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানগুলোর উপর কর্তৃত্ব আরোপের মাধ্যমে কার্যত একচেটিয়া শাসনতন্ত্র কায়েম করছে। নির্বাচন কমিশনের বিধিমালা এবং আচরণ বহুদলীয় গণতন্ত্রের পরিপন্থী। তারপরও নির্বাচন কমিশনের সকল শর্ত মেনে আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু নির্বাচন কমিশন বাছাই প্রক্রিয়ার নিয়ম না মেনেই অনেক রাজনৈতিক দলকে অযোগ্য ঘোষণা করেছে। জনমত যাচাই না করে সরকার সকল গণতান্ত্রিক দাবিকে দমন করছে। দেশের ভেতর রাজনৈতিক হতাশা তৈরির মাধ্যমে তাদের ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করার চেষ্টা করছে। সরকার তাদের ঘরানার বাইরের দলগুলোকে নিবন্ধন দিচ্ছে না। গণসংহতি আন্দোলন বর্তমানে দেশের অন্যতম রাজনৈতিক দল। দেশে নতুন রাজনীতি তৈরির মাধ্যমে পরিবর্তনের সংগ্রাম করে যাচ্ছে।