ঘুষের টাকাসহ সাব রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক>পাবনার আটঘরিয়া উপজেলা সাব রেজিস্ট্রার ইসরাত জাহানকে তার কার্যালয় থেকে ঘুষের টাকাসহ গ্রেপ্তার করার কথা জানিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার বিকালে দুদকের পাবনা জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবু বকর সিদ্দিকের নেতৃত্বে কর্মকর্তারা ওই সাব-রেজিস্ট্রারকে গ্রেপ্তার করেন।

কমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এক ব্যক্তির কাছ থেকে নেওয়া ঘুষের ১৪ হাজার টাকাসহ ইসরাত জাহানকে গ্রেপ্তার করা হয়।

দুদুকের পাবনা জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শেখ গোলাম মাওলা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সাব রেজিস্ট্রার ইসরাত জাহান স্থানীয় এক ব্যক্তির চারটি দলিল নিবন্ধন করে দেওয়ার জন্য ১৪ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন। পরে ওই ব্যক্তি বিষয়টি আমাদেরকে অবহিত করেন। কমিশনের সিদ্ধান্তে সাব রেজিস্ট্রারকে গ্রেপ্তারের জন্য ফাঁদ পাতা হয়।

“পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী নিজ কার্যালয়ে বসে ঘুষের টাকা নেওয়ার সময় ওঁৎ পেতে থাকা আমাদের কর্মকর্তারা তাকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করেন।”

এ ঘটনায় দুদক কর্মকর্তা শেখ গোলাম মাওলা বাদী হয়ে আটঘরিয়া থানায় মামলা করছেন।

সওজ’র সাবেক প্রকৌশলীকে নোটিস

সড়ক ও জনপথ বিভাগের সাবেক তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. আব্দুর রউফ ও তার স্ত্রী সাহিদা ইদ্রিসের সম্পদের তথ্য চেয়ে নোটিস দিয়েছে দুদক।

মঙ্গলবার কমিশন থেকে পাঠানো পৃথক দুটি নোটিসে তাদের নিজের এবং নির্ভরশীল ব্যক্তির নামে বা বেনামে থাকা সম্পদ ও সম্পত্তির বিবরণী দাখিলের জন্য এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “প্রকৌশলী আব্দুর রউফ ও তার স্ত্রীর নামে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত বিপুল পরিমাণ সম্পদ থাকার একটি অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় এই নোটিস দেওয়া হল।”

দুদকের সহকারী পরিচালক এ এস এম সাজ্জাদ হোসেন প্রকৌশলী আব্দুর রউফ ও তার স্ত্রী বিরুদ্ধে আসা অভিযোগ অনুসন্ধান করছেন।