অসদাচরণ : ক্রিকেটার শিবলু ৩ বছরের জন্য বহিষ্কার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :

অসদাচরণ: ক্রিকেটার শিবলু ৩ বছরের জন্য বহিষ্কার

অসদাচরণের দায়ে তিন বছরের জন্য বহিষ্কার করা হলো জাতীয় দলের ক্রিকেটার শেখ রবিউল ইসলাম শিবলুকে। গত ৬ মার্চ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার ক্রিকেট সাব-কমিটির চেয়ারম্যান অনিন্দিতা রায় স্বাক্ষরিত পত্রে তাকে বহিষ্কার করা হয়।

ওই পত্রে বলা হয়েছে, ক্রিকেট সাব কমিটির ৫ মার্চের সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থা পরিচালিত ক্রিকেট কার্যক্রমসহ সকল প্রকার ক্রীড়া কার্যক্রম থেকে (খেলোয়াড়, টিম ম্যানেজার, কোচ) আগামী তিন বছরের জন্য শেখ রবিউল ইসলাম শিবলুকে বহিষ্কার করা হলো।

সূত্র জানায়, অসদাচরণের অভিযোগে ক্রিকেটার শেখ রবিউল ইসলাম শিবলুকে ২৫ ফেব্রুয়ারি শোকজ নোটিশ দেয় জেলা ক্রীড়া সংস্থা। ওই সময় তাকে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে শোকজের লিখিত জবাব দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়। তবে তার দেওয়া জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় ক্রিকেট সাব-কমিটির ৫ মার্চের সভায় তাকে তিন বছরের জন্য বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, চলতি মৌসুমে জেলা ক্রিকেট দলে ডাক না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাদের সাথে কয়েক দফায় চরম অসদাচরণ করেন ক্রিকেটের ‘ব্যাড বয়’ খ্যাত শেখ রবিউল ইসলাম শিবলু। ওই সময় তিনি সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ মাঠে কর্মরত পিচ কিউরেটরের সাথেও চরম অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। তাকে কয়েকবার সতর্ক করা হলেও তিনি তার কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত না হয়ে একের পর এক অঘটন ঘটাতে থাকেন। সর্বশেষ বাধ্য হয়ে জেলা ক্রীড়া সংস্থা তাকে শোকজ নোটিশ দেয়।

এর আগে জাতীয় দলে থাকাকালে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ মাঠে এক শিক্ষককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে আলোচনায় আসেন শিবলু। সে যাত্রায় ক্ষমা চেয়ে রেহাই পেলেও আচরণে ইতিবাচক পরিবর্তন আসেনি তার।

স্থানীয় ক্রীড়াবিদরা জানান, জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার পর হঠাৎই উগ্র হয়ে ওঠেন ক্রিকেটার শিবলু। তিনি মানুষকে মানুষ মনে করেন না। এরই এক পর্যায়ে তিনি সরকারি কলেজের এক শিক্ষককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন আরও।

এ বিষয়ে শিবলু বলেন, আমি কারোর সাথে খারাপ ব্যাবহার করিনি। আমার কাছে জবাব চাওয়া হয়েছিল আমি উত্তর দিয়েছি। সন্তোষজনক না হলে সেটি তাদের ব্যাপার বলে তিনি জানান।