যশোরের শার্শায় ভারতগামী ২ তরুণীকে রাতভর গণধর্ষণ

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোরের শার্শা উপজেলার পুটখালী সীমান্তে শনিবার দিনগত রাতে অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার পথে ২ তরুণী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে।

খবর পেয়ে পুলিশ ধর্ষিতাদের উদ্ধার করে এবং ৬ ধর্ষককে আটক করেছে।

স্থানীয়রা জানায়, পুটখালী গ্রামের শাহ আলমের বাড়ির পাশের একটি পুকুরপাড়ে রাতভর ৭ যুবক পালাক্রমে ভারতগামী ২ তরুণীকে ধর্ষণ করে। ধর্ষিতা ২ তরুণীর বাড়ি যথাক্রমে কুষ্টিয়া ও চাঁদপুর জেলায়।

ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ পুটখালী গ্রামের ছাদেক হোসেনের ছেলে রাতুল (২৫), আলম মিয়ার ছেলে সোহেল (২৩), খালেক সেখের ছেলে আব্দুল্লাহ (২৩), আজাহার হোসেনের ছেলে আরিফ হোসেন (২৫), মোর্শেদ আলীর ছেলে শিমুল (২৪) ও আয়ুব আলীর ছেলে বিপ্লব (২২)-কে আটক করেছে। তবে শাহীন নামে এক ধর্ষককে ধরতে পারেনি পুলিশ।

স্থানীয়রা আরো জানান, ভারতে স্বজনদের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ২ তরুণী দালালদের মাধ্যমে পুটখালী গ্রামে আসে। এরপর তাদের রাতে শাহ আলম বিশ্বাসের বাড়িতে আটকে রেখে গভীর রাতে পুকুরপাড়ে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

বেনাপোল পোর্ট থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম বলেন, অবৈধপথে ভারতে যাওয়ার উদ্দেশে আসা ২ তরুণীকে পুটখালী গ্রামের ৭ ধর্ষক সারারাত পালাক্রমে ধর্ষণ করে জানতে পেরে কৌশলে গ্রামবাসীর সহযোগিতায় মীমাংসা করার কথা বলে ধর্ষকদের পুটখালী গ্রামের একটি বাড়িতে হাজির করে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ২ তরুণীকে উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। আগামীকাল সোমবার তাদের যশোর আদালতে পাঠানো হবে।