জিএসপি ফেরতে মিলারের ভূমিকা চান বাণিজ্যমন্ত্রী

স্পন্দন নিউজ ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের পণ্যের অবাধ বাজারসুবিধা (জিএসপি) ফেরতে ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত বরার্ট মিলারের ভূমিকা প্রত্যাশা করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী।

বৃহস্পতিবার আমেরিকান চেম্বার অফ কমার্স ইন বাংলাদেশ এবং ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ২৬তম ইউএস ট্রেড শো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি প্রত্যাশার কথা জানান।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তৈরি পোশাক রফতানিতে বাংলাদেশ আগেও কোনো জিএসপি সুবিধা পায়নি। টোবাকো, সিরামিক, প্লাস্টিকের মতো কিছু পণ্য রফতানির ওপর এই সুবিধা পাওয়া যেত। অপ্রত্যাশিত রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর সেটিও স্থগিত করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘ক্রেতাগোষ্ঠীর পরামর্শে তৈরি পোশাক কারখানাগুলোর পরিবেশ উন্নত, বিল্ডিং সেফটি, ফায়ার সেফটি নিশ্চিত করা হয়েছে।  শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এরপরও জিএসপি স্থগিত রাখার কোনো কারণ নেই। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উচিৎ বাংলাদেশকে জিএসপি ফেরত দেয়া।’

টিপু মুনশী বলেন, ‘জিএসপি স্থগিত থাকায় বাংলাদেশের তেমন কোনো আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে না। তবে, ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাংলাদেশ সব শর্ত পূরণ করেছে। এখন জিএসপি ফেরতে বাংলাদেশে নবনিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলারের উদ্যোগ গ্রহণ করা উচিত।’

তিনি আরও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের একক দেশ হিসেবে সবচেয়ে বড় ক্রেতা। গত ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে বাংলাদেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৫৯৮৩.৩১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য রফতানি করেছে। একই সময়ে আমদানি করেছে ১৭০৩.৬৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য।’

আমেরিকান চেম্বার অফ কমার্স ইন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মো. নূরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রবার্ট মিলার।