ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর শেয়ারে একদিনে ৬৫০ টাকা লাভ

জানা যায়, সোমবার দিনশেষে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর সমাপনী শেয়ার দর ছিল ৩ হাজার ৯৪৯.৫০ টাকা।

কিন্তু মঙ্গলবার কোম্পানিটির প্রারম্ভিক মূল্য ছিল ৫ হাজার ১০০ টাকা। এদিন কোম্পানিটির শেয়ার দর সর্বোচ্চ ৫ হাজার ৫০০ টাকায় লেনদেন হয়েছে।

দিনশেষে কোম্পানিটির শেয়ারের সমাপনী বাজার দর ছিল ৪ হাজার ৫৮০ টাকা।

কিন্তু এদিন কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ৪ হাজার ৬০০ টাকায় লেনদেন হয়েছে। অর্থ্যাৎ দিনশেষে কোম্পানিটির শেয়ার বেড়েছে ১৬.৪৭ শতাংশ বা ৬৫০.৫ টাকা।

মঙ্গলবার বহুজাতিক এ কোম্পানিটির ১ লাখ ৫৯ হাজার ১২২টি শেয়ার ৭৫ কোটি ৩৬ লাখ টাকায় হাতবদল হয়েছে।

এর আগে সোমবার কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ সভায় বিনিয়োগকারীদের ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৮ সমাপ্ত অর্থবছরের জন্য ৫০০ শতাংশ ক্যাশ ও ২০০ শতাংশ স্টকসহ মোট ৭০০ শতাংশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা করা হয়েছিল।

আলোচিত বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৬৬.৮৭ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১৩০.৫০ টাকা।

একই সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ৪৯২.১৫ টাকা। শেয়ার প্রতি নগদ কার্যকর অর্থ প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ১৫০.১৩ টাকা।

ডিভিডেন্ড অনুমোদনের জন্য কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) আগামী ২৮ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১০টায় সোনারগাঁও হোটেল, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে। এর জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৪ এপ্রিল।

এদিকে কোম্পানিটি অনুমোদিত মূলধন ৬০ কোটি টাকা থেকে ৫৪০ কোটি টাকা করবে। এর জন্য বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) ২৮ এপ্রিল সকাল ১০টায় সোনারগাঁও হোটেলে করবে।

উল্লেখ্য, ১৯৭৭ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয় ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো। কোম্পানিটির অনুমোদিত ও পরিশোধিত মূলধন ৬০ কোটি টাকা। কোম্পানিটির সর্বমোট শেয়ারের ৭২.৯১ শতাংশ উদ্যোক্তা পরিচালকদের নিকট রয়েছে। বাদবাকি শেয়ারের ০.৬৪ শতাংশ সরকারের নিকট, ৯.৭৬ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী, ১৬.০১ শতাংশ বিদেশী বিনিয়োগকারী ও ০.৬৮ শতাংশ সাধারণ বিনিয়োগকারীদের নিকট রয়েছে।