৫১৯৫ পদ শূণ্য রেখে নিয়োগবিধি সংশোধন করছে খাদ্য মন্ত্রণালয়

স্পন্দন নিউজ ডেস্ক : বর্তমানে খাদ্য মন্ত্রণালয়ে ৫৩টি, খাদ্য অধিদপ্তরে ৪ হাজার ৮২৬টি, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষে ৩১৬টি পদ শূন্য রয়েছে। এসব শুন্য পদে জনবল নিয়োগের ব্যবস্থা করা ছাড়াও নিয়োগ বিধি সংশোধন করা হচ্ছে।

রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির প্রথম বৈঠকে এ তথ্য উপস্থাপন করা হয়।

বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা যায়, খাদ্য মন্ত্রণালয়ে প্রথম শ্রেণির ১৯টি, দ্বিতীয় শ্রেণির ১৪টি, তৃতীয় শ্রেণির ১৭টি, চতুর্থ শ্রেণির তিনটিসহ মোট ৫৩টি পদ শূন্য।

খাদ্য অধিদপ্তরের প্রথম শ্রেণির ৩১৯টি, দ্বিতীয় শ্রেণির ৫৫৪টি, তৃতীয় শ্রেণির দুই হাজার ৫৮০টি, চতুর্থ শ্রেণির ১ হাজার ৩৭৩টিসহ মোট ৪ হাজার৮২৬টি পদ শূন্য রয়েছে।

অন্যদিকে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের প্রথম শ্রেণির ১১টি, তৃতীয় শ্রেণির ১১৮টি এবং চতুর্থ শ্রেণির ৮০টি (আউট সোর্সিং) মোট ৩১৬টি পদ শূন্য রয়েছে।

খাদ্য ব্যবস্থাপনা আরও কার্যকরী করা এবং মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমকে আরও বেগবান করার ক্ষেত্রে যে জনবল সংকট রয়েছে তা নিরসনে শূণ্য পদে দ্রুত নিয়োগ কার্যক্রম শেষ করার সুপারিশ করে সংসদীয় কমিটি।

বৈঠকে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত ও ভেজালমুক্ত খাদ্য অভিযান জোরদার করার পরামর্শ দেয়া হয়।

রমজান মাসে খাদ্যদ্রব্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণ ও নিরাপদ খাদ্য সরবরাহের সুপারিশ করা হয়। এ লক্ষ্যে প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর মন্ত্রী ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে বৈঠক করে সমস্যা সমাধানের সুপারিশ করা হয়।
ধান, গম ও অন্যান্য খাদ্যশস্যের প্রকৃত সরকারি ধার্য্যমূল্য যাতে কৃষক পায় সেজন্য প্রয়োজনীয় তদারকি জোরদার করাসহ বিদেশি চাল আমদানীতে আমদানি শুল্ক বৃদ্ধির বিষয়েও মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেয় কমিটি।

দেশে যাতে কোনো ধরণের কৃত্রিম খাদ্য সংকট তৈরি না হয় সেজন্য চাল মজুদের ক্ষেত্রে যে হিসেব প্রদর্শন করা হয় এবং প্রকৃতপক্ষে গুদামে চালের সেই পরিমাণ মজুদ আছে কিনা বা সরবরাহ করা হচ্ছে কিনা সে বিষয়টি অতি গুরুত্বের সাথে নজরদারিতে রাখতে মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেয়া হয়।

কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার, নুরুল ইসলাম নাহিদ, মো. আতিউর রহমান আতিক, ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, মো. আব্দুল হাই, মো. আয়েন উদ্দিন, আতাউর রহমান খান, আঞ্জুমান সুলতানা অংশ নেন।

বৈঠকে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রপ্ত সচিবসহ মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।