‘বেপরোয়া গতি’ কেড়ে নিলো দুই বন্ধুর প্রাণ

এখন সময়: মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর , ২০২২ ২৩:৩১:০৩ pm

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই বন্ধুর মৃত্যু হয়েছে। তাদের একজন ঘটনাস্থলে আরেকজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। বুধবার বিকেলে যশোর- ঢাকা রোডের বারান্দীপাড়ায় রোজা ফার্নিচারের সামনে দুর্ঘটনাটি ঘটে। বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। নিহতরা হলো  সিটি কলেজপাড়ার বউ বাজার এলাকার বাসিন্দা  সিরাজুল ইসলাম ওরফে সিরাজের ছেলে আলা আমিন হোসেন(২৩) ও বারান্দী মোল্লাপাড়া বাঁশতলা এলাকার বাসিন্দা  ইব্রাহিম হোসেন ওরফে ঝড়োর ছেলে ইসমাইল হোসেন (২২। সিসিটিভি ফুটেজে দুর্ঘটনার বিষয়টি স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে। যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

আল আমিনের শ্বশুর সুমন হোসেন জানান, আল আমিন ও ইসমাইল দুই জন ভালো বন্ধু। ঘটনার সময় তারা মোটরসাইকেল করে যাচ্ছিলো। আল আমিন মোটরসাইকেলের চালক ছিলো। পথিমধ্যে বারান্দীপাড়ায় অবস্থিত কমার্স কলেজ ও রোজা ফার্নিচারের সামনে পৌঁছালে প্রথমে সামনে থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলের সাথে সংঘর্ষ হয়। পরে তাদের বহনকৃত মোটরসাইকেল একটি ইজিবাইকের সাথে ধাক্কা খায়। দুর্ঘটনায় তারা দুই জন সড়কের ওপর ছিটকে পড়ে। এলাকার লোকজন তাদের উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে আনেন।

এ সময় জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আল আমিনকে মৃত ঘোষণা করেন। আর ইসমাইলকে ভর্তি করে চিকিৎসার জন্য ওয়ার্ডে পাঠান। এর কিছু সময় পর ইসমাইল মারা যায়।

জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শুভাশিস রায় জানান, হাসপাতালে আনার আগেই আল আমিন মারা যায়। ভর্তির কয়েক মিনিটের মধ্যে ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে ইসমাইলের।

নিহত আল আমিনের বড় ভাই মনিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, তার মোটরসাইকেল নিয়ে দুই বন্ধু ঘুরতে বের হয়েছিলো। বিকেলে দুর্ঘটনার খবর জানতে পেরে হাসপাতালে আসার পর জানতে পারি তারা ( আল আমিন ও ইসমাইল) মারা গেছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, মোটরসাইকেলের বেপরোয়া গতির কারণে এই দুর্ঘটনার সূত্রপাত। এতে দুই বন্ধু মারা গেছে। ঘটনাটি অত্যন্ত কষ্টদায়ক।

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই বন্ধুর মৃত্যুর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মনিরুজ্জামান। তিনি সকলকে বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল না চালানোর আহবান জানিয়েছেন।