বেইলি রোডের বাসভবনে সৈয়দ আশরাফের মরদেহ

এর আগে সন্ধ্যা ৬টার দিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সযোগে হযরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে তার মরদেহ পৌঁছায়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে দলটির জাতীয় নেতৃবৃন্দ তার মরদেহ গ্রহণ করেন।

বেইলী রোডের বাসভবন থেকে তার মরদেহ নেওয়া হবে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের হিমঘরে। পরদিন ৬ জানুয়ারি ২০১৮ রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় মরহুমের প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর হেলিকপ্টারযোগে মরদেহ কিশোরগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হবে এবং দুপুর ১২টায় কিশোরগঞ্জ পুরাতন স্টেডিয়াম মাঠে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

মরহুমের তৃতীয় নামাজে জানাজা দুপুর ২টায় ময়মনসিংহের আঞ্জুমান ঈদগাঁ মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বাদ আছর বনানী কবরস্থানে দাফন করা জনপ্রিয় এই নেতাকে।

উল্লেখ্য, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ৩ জানুয়ারি ব্যাংককের একটি হাসপাতালে মারা যান।

বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম আমৃত্যু বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। টানা ৫ বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য আশরাফ একাধারে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী এবং বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন।

সর্বশেষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছিলেন তিনি।