সুবর্ণচরের গৃহবধূকে দেখে কাঁদলেন ফখরুল

নোয়াখালী প্রতিনিধি :

সুবর্ণচরের গৃহবধূকে দেখে কাঁদলেন ফখরুল

‘বোন আমরা তোমার পাশে আছি। তোমার কোনো ভয় নেই। বোন, এই নিমর্মতার অবশ্যই একদিন বিচার হবে। আল্লাহ বিচার করবেন’।

ভোটের পর সূবর্ণচরে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে দেখতে গিয়ে এ কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

নির্যাতিত গৃহবধূর মাথায় হাত বুলানোর সময়ে আবেগে কেঁদে ফেলেন তিনি। এ সময়ে চারপাশের নেতাদেরকেও অশ্রুসজল হয়ে পড়তে দেখা যায়।

গৃহবধূর কান্নার সাথে তার স্বামীও বিএনপি মহাসচিবকে জড়িয়ে কাঁদতে থাকেন।

এসময় জেএসডির আসম আবদুর রব ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীও নির্যাতিত গৃহবধূর মাথায় হাত বুলিয়ে সান্ত্বনা দেন।

পরে বিএনপি মহাসচিব, আসম আবদুর রব, কাদের সিদ্দিকী গৃহবধূকে আর্থিক অনুদান দেন।

জেনারেল হাসপাতালের ০৯ নম্বর কেবিন ভর্তি রয়েছেন নির্যাতিত গৃহবধূ।

পরে সাংবাদিকদের মির্জা ফখরুল বলেন, ভোটের অধিকার থেকে আওয়ামী লীগ মানুষকে বঞ্চিত করেছে, তাদেরকে প্রতারিত করেছে। এই বঞ্চিত করার পরে যেহেতু তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে, মানুষের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে সেজন্য তারা এখন গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে।

নির্বাচনের আগে, নির্বাচনের দিন ও নির্বাচনের পরে আওয়ামী লীগ যে সহিংসতা সৃষ্টি করেছে তাতে অসংখ্য মানুষ আহত হয়েছে, পঙ্গু হয়েছে।

তিনি বলেন, ধানের শীষে ভোট দেওয়ায় নোয়াখালীতে চার সন্তানের মা গণধর্ষণের শিকার হলেন, এই বিচারের ভার জাতির কাছে দিলাম।

গত ৩০ ডিসেম্বর রাতে সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলীর সিএনজি চালকের স্ত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। ধর্ষণ ও নির্যাতনের ঘটনায় ৩১ ডিসেম্বর নয়জনের নাম উল্লেখ করে চরজব্বর থানায় মামলা করেন নির্যাতনের শিকার নারীর স্বামী।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।