স্বর্ণ পেতে নদীর তলদেশে সুড়ঙ্গ খনন, ধসে নিহত ৩০

স্বর্ণ পেতে নদীর তলদেশে সুড়ঙ্গ খনন, ধসে নিহত ৩০

উত্তর-পূর্ব আফগানিস্তানের একটি স্বর্ণখনি ধসে কমপক্ষে ৩০ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

বাদাখশান প্রদেশের কোহিস্তান জেলায় রোববার এই ঘটনা ঘটে বলে জানায় ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি।

বিবিসির খবরে বলা হয়, স্বর্ণ উত্তোলনের জন্য স্থানীয় গ্রামবাসীরা একটি নদীর তলদেশে ২২০ ফিট গভীর একটি সুড়ঙ্গ খুঁড়ে খনিতে নামে। ওই সুড়ঙ্গটি ধসে পড়লে তারা নিহত হন।

আফগানিস্তানে প্রচুর পরিমাণে খনিজ সম্পদ রয়েছে। কিন্তু সেখানকার বেশিরভাগ খনিই পুরনো এবং সেগুলো ঠিকমতো রক্ষণাবেক্ষণ না করায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

গ্রামবাসীরা ওই জায়গায়টি খননের জন্য এক্সক্যাভেটর বা বিশেষ যন্ত্র ব্যবহার করার সময় খনিটি ধসে পড়ে।

এই ঘটনায় অন্তত আরও সাত জন আহত হয়েছে।

প্রাদেশিক সরকারের মুখপাত্র নিক মোহাম্মদ নাজারি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘গ্রামবাসীরা কয়েক দশক ধরে এই ব্যবসায় জড়িত এবং এদের ওপর সরকারের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই।’

‘সেখানে উদ্ধারকর্মীদের একটি দল পাঠানো হয়েছে কিন্তু গ্রামবাসীরা ইতিমধ্যেই ওই জায়গা থেকে মৃতদেহ সরিয়ে ফেলতে শুরু করেছে’, যোগ করেন তিনি।

বিবিসি জানায়, আফগানিস্তানের বিপুল প্রাকৃতিক সম্পদের বেশিরভাগই তালেবানদের সঙ্গে লড়াইয়ের কারণে আরোহণ করা যায়নি।

এর ফলে গ্রামবাসী এবং তালেবানরা খনি থেকে অবৈধভাবে সম্পদ উত্তোলন করে, যেটা তাদের আয়ের অন্যতম উৎস।