আ. লীগের ‘বিজয় উৎসব’ শনিবার, যান চলাচলে নিয়ন্ত্রণ

নিজস্ব প্রতিবেদক>

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় উদযাপনে শনিবার ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ‘বিজয় উৎসব’ করবে আওয়ামী লীগ।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে ২৫৭ আসনে জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ, তাদের পক্ষে ভোটের হার অতীতের যে কোনো নির্বাচনের চেয়ে বেশিক্ষমতাসীন দলটির এই কর্মসূচি ঘিরে ঢাকার কিছু সড়কে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে বলে জানিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ। পাশাপাশি ওই কর্মসূচিতে যোগ দিতে ইচ্ছুক নেতাকর্মীদের জন্যও অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথ ঠিক করে দিয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার ডিএমপির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামী ১৯ জানুয়ারি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত ‘বিজয় উৎসব’ চলার সময় সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও আশপাশের কয়েকটি সড়কে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

এদিন শাহবাগ থেকে মৎস্যভবন পর্যন্ত সড়কে লোকজনের চলাচল বন্ধ থাকবে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের চার পাশের সড়কে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

ওই দিন ভোর থেকে অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত বাংলামটর, হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল, শাহবাগ, কাঁটাবন, নীলক্ষেত, পলাশী, বকশীবাজার, চাঁনখারপুল, গোলাপ শাহ মাজার, জিরো পয়েন্ট, পল্টন, কাকরাইল চার্চ, অফিসার্স ক্লাব, মিন্টো রোড ক্রসিং থেকে গাড়ি বিকল্প পথে (ডাইভারশন) পাঠানোর প্রয়োজন পড়তে পারে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

অনুষ্ঠানে আগতদের কোনো ধরনের হাতব্যাগ, ট্রলি ব্যাগ, দাহ্য পদার্থ বা ধারালো কোনো বস্তু কাছে না রাখার অনুরোধ করা হয়েছে। তাদেরকে কয়েকটি রুট মেনে অনুষ্ঠানে আসার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

গাবতলী, মিরপুর সড়ক হয়ে আসা লোকজনকে সায়েন্স ল্যাব-নিউ মার্কেট হয়ে নীলক্ষেতে নেমে পায়ে হেঁটে টিএসসি হয়ে বিভিন্ন ফটক দিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশের কথা বলা হয়েছে। ওই দিক থেকে আসা যানবাহন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মল চত্বর এবং নীলক্ষেত থেকে পলাশী পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে এক লাইনে রাখতে হবে।

উত্তরা থেকে বিমানবন্দর সড়ক হয়ে মহাখালী- মগবাজার-কাকরাইল চার্চ-নাইটিঙ্গেল-পল্টন মোড় হয়ে জিরো পয়েন্টে আসা এবং খিলক্ষেত ফ্লাইওভার-বাড্ডা-গুলশান-রামপুরা রোড-মৌচাক ফ্লাইওভার-মালিবাগ-শান্তিনগর-পল্টন মোড় বা জিরো পয়েন্ট হয়ে আসা লোকজনকে পল্টন মোড় কিংবা জিরো পয়েন্টে নেমে যেতে হবে। পরে পায়ে হেঁটে দোয়েল চত্বর হয়ে অনুষ্ঠানস্থলে আসতে বলা হয়েছে তাদের।

এদিক থেকে আসা যানবাহন মতিঝিল এলাকায় রাখতে হবে। তবে মতিঝিলে স্থান সংকুলান না হলে প্রয়োজনে হাতিরঝিল এলাকায় পার্কিং করা যাবে।

দেশের পূর্বাঞ্চল থেকে যাত্রাবাড়ি কিংবা দক্ষিণাঞ্চল থেকে পোস্তগোলা হয়ে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের নীচের সড়ক ধরে আসা নেতাকর্মিীদের গুলিস্তানে নেমে পায়ে হেঁটে জিরো পয়েন্ট, দোয়েল চত্বর হয়ে অনুষ্ঠানস্থলে আসতে বলেছে ডিএমপি।

এদিক দিয়ে আসা যানবাহন মতিঝিল ও গুলিস্তান এলাকায় রাখতে হবে। মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের ওপর দিয়ে চানখাঁরপুল হয়ে উৎসবে আগতদের চাঁনখারপুলে নেমে যেতে হবে। সেখান থেকে পায়ে হেঁটে দোয়েল চত্বর হয়ে উদ্যানে যাবেন তারা। তাদের যানবাহন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জিমনেশিয়াম মাঠে রাখতে হবে বলে জানিয়েছে ডিএমপি।

বাবুবাজার ব্রিজ হয়ে অনুষ্ঠানে আসা লোকজনকে গুলিস্তানের গোলাপ শাহ্ মাজারে নেমে পায়ে হেঁটে হাই কোর্ট-দোয়েল চত্বর হয়ে উদ্যানে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তাদের যানবাহন রাখতে হবে গুলিস্তান এলাকায়।