শার্শাকে মাদক মুক্ত ঘোষণা দিলেন এমপি আফিল

শার্শা (যশোর) প্রতিনিধি : শার্শা উপজেলা ও বেনাপোল পোর্ট থানাকে মাদক মুক্ত ঘোষণা দিলেন যশোর-১ (শার্শা) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন।

দেশের দক্ষিন পশ্চিম সীমান্ত অঞ্চল শার্শা উপজেলা ভৌগলিক কারনে ভারত সীমান্তের একটি বড় অংশের সাথে মিশে রয়েছে। আর এ অঞ্চলের অধিবসাী সহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের এখানে বসবাস। সীমান্তের ওপার থেকে মাদক এনে একটি সমাজ বিরোধি চক্র সামাজিক পরিবেশকে ধ্বংস করছে।

তাই এসব মাদক ব্যবসায়িদের সাথে কোন আপোস নয়। তাদের দমনের জন্য প্রশাসনকে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আহবান জানান। কথাগুলো বললেন মাদক বিরোধী সমাবেশে যশোর-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন।

সোমবার বিকাল সাড়ে ৪ টার সময় বেনাপোল সোনালী ব্যংক চত্বরে শার্শা মাদক নির্মুল কমিটির উদ্যেগে মাদক বিরোধি সমাবেশে শার্শা উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি শেখ আফিল উদ্দিন এমপি বলেন, মাদক মানুষকে ও পরিবারকে ক্ষত বিক্ষত করে তোলে। তাই মাদক নামে আর কোন শব্দ থাকবে না শার্শা উপজেলায়।
তিনি বলেন, ইতিমধ্যে যে সকল মাদক ব্যবসায়িরা বিভিন্ন কারনে পুলিশের সাথে র‌্যাবের সাথে এবং নিজেরা মাদক ব্যাবসা নিয়ে গুলা গুলিতে নিহত হয়েছে, তাদের মতো যেন আর কেউ নিহত না হয়। যার বাড়ি যে মাদক আছে তা আজ রাত্রে ফেলে দিয়ে অন্য পেশায় চলে যেতে বলেন তিনি। তিনি আরো বলেন, আপনারা মাদক ছেড়ে চলে আসেন আমি আমার জুট মিলে আজই চাকরি দিব। বেনাপোল বন্দরে কাজ দিব। তবু আপনারা এ ব্যবসা ছেড়ে দেন।

এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান মেম্বারদের তিনি বলেন, আপনারা এলাকায় যেয়ে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে মিটিং করেন এবং তাদের আজকের সমাবেশের বার্তা পৌছায় দেন। কারন মাদক ব্যবসা করে যদি একটি পরিবার থেকে সেই উপার্জন কারি হারিয়ে যায় তাহলে সেই পরিবারটি ধ্বংস হয়ে যাবে।

বেনাপোলের ভবারবেড়, সাদিপুর, গাতিপাড়া, দৌলতপুর, পুটখালী, বাহদুরপুর এবং শার্শার গোগা, কায়বা, রুদ্রপুর, লক্ষনপুর ও শিকারপুর এলাকায় মাদক ব্যবসা হয় তার তথ্য তার কাছে আছে বলে তিনি বলেন, এ এলাকার মাদক ব্যবসায়িরা আজ থেকে সাবধান হয়ে যান নইলে আমি বাধ্য হবো আপনাদের তথ্য প্রশাসনের কাছে দিতে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, যশোর জেলা পুলিশ সুপার মইনুল ইসলাম (বি.পি.এম পি.পি.এম) খুলনা ২১ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমরান উল্লাহ সরকার, যশোর র‌্যাব-৬ এর পুলিশ সুপার সুরত আলী, শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসার পুলক কুমার মন্ডল,শার্শা থানার ওসি এম মশিউর রহমান, বেনাপোল পোর্ট থানা ওসি আবু সালেহ মাসুদ করিম, শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নুরুজ্জামান, শার্শা উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি অহিদুজ্জামান অহিদ প্রমুখ।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে ও মাদক ব্যাবসায়িদের এ পথ থেকে সরে আসার জন্য কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারন করা হয়। পুলিশ সুপার মইনুল হোসেন বলেন শার্শা উপজেলাকে মাদক মুক্ত করতে যে কোন ধরনের পদক্ষেপ তিনি নিতে প্রস্তুত। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন নাভারণ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ইব্রাহীম খলীল।