দেশকে উন্নত সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা …….. শেখ আফিল উদ্দিন এমপি

শেখ কাজিম উদ্দিন, বেনাপোল >
যশোর-১(শার্শা) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন বলেন, মানুষের দুঃখ-দুর্দশা লাঘবের জন্য বঙ্গবন্ধু এদেশকে নেতৃত্ব দিয়ে স্বাধীন করেছিলেন। আর তা বাস্তবায়ন করে বাংলাদেশকে একটি উন্নত সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই, দলমত নির্বিশেষে উন্নয়নের সরকারকে সহযোগিতা করলে এদেশ একদিন বিশ^ দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে বলে আমি বিশ^াস করি।
গতকাল বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট স্টাফ এসোসিয়েশন আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন সংসদ সদস্য। যশোর-১ আসনে তৃতীয় বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় তাঁকে এ সংবর্ধনা দেয় সংগঠনটি।
সংগঠনের সভাপতি মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শেখ আফিল উদ্দিন এমপি আরো বলেন, জাতি এখন আর পিছনে ফিরে তাকাতে চায় না। চায় উন্নয়ন। তাই, দলমত নির্বিশেষে এবারের জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করেছে। এজন্য আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের কাছে আরো বেশিভাবে দায়বদ্ধ হয়ে পড়েছে। তাই, দেশ স্বাধীনের পর বিগত ৪৭ বছরে এদেশে যে উন্নয়ন হয়েছে তা আগামী ৫ বছরে দ্বিগুন ছাড়িয়ে যাবে বলে আমি বিশ^াস করি। তবে, প্রয়োজন সকলের সহযোগিতা। অর্থ দিয়ে নয়। দয়া করে আপনারা নিজ ইচ্ছায় আপনার সন্তানকে স্কুল-কলেজমুখী করবেন এবং তাদের পিছনে নিয়মিত সময় ব্যয় করবেন। তাতে একদিকে আপনার সন্তান সু-সন্তানে পরিণত হয়ে আপনার ঘরে আলো ছড়াবে। অন্যদিকে এদেশ হবে এক জ্যোতিময় রাষ্ট্র। তাই, আমি চাই, শার্শা উপজেলার প্রত্যেক ঘরে একটি করে হলেও সু-সন্তান জন্মাতে হবে। এজন্য আমার সার্বিক সহযোগিতা সকলের জন্য অব্যাহত থাকবে।
এসময় তিনি বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দকে স্টাফ এসোসিয়েশনের সদস্যদের বিল অব এন্ট্রি প্রতি বিশ টাকার পরিবর্তে পঁচিশ টাকা দেওয়ার অনুরোধ করেন। বলেন, অতিরিক্ত পাঁচ টাকা সকল স্টাফদের সন্তানের লেখাপড়ার খরচ জোগাতে সহযোগিতা করবে। পরে সিএন্ডএফ মালিক নেতৃবৃন্দদের সাথে নিয়ে নিজের কাছ থেকে স্টাফ এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের হাতে পাঁচ টাকা দিয়ে বিল অব এন্ট্রি প্রতি “বিশ টাকার পরিবর্তে পঁচিশ” টাকার পথচলা শুরু করে দেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আলহাজ মফিজুর রহমান সজন, সিনিয়র সহ সভাপতি ও শার্শা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ নুরুজ্জামান, সাবেক সভাপতি আলহাজ সামছুর রহমান, সাধারন সম্পাদক ইমদাদুল হক লতা।
আরো বক্তব্য রাখেন বেনাপোল সিএন্ডএফ স্টাফ এসোসিশনের সাধারন সম্পাদক নাসির উদ্দিন ও সাংগঠনিক সম্পাদক হাসানুজামান তাজিন।
অনুষ্ঠান শেষে বেনাপোল-পেট্রাপোল নো-ম্যান্সল্যান্ডে ২১শে ফেব্রুয়ারি আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনের লক্ষ্যে ভারতের পেট্টাপোল পৌরসভার মেয়র শংকর আঢ্য ডাকুর সাথে মত বিনিময় করেন শেখ আফিল উদ্দিন এমপিসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। পরে বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস স্টাফ এসোসিয়েশনের নব নির্মিত ভবনের অফিস কক্ষ উদ্বোধন করেন তিনি।
অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন বেনাপোল পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ এনামুল হক মুকুল, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ নাসির উদ্দিন, শার্শা সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক সোহরাব হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, বেনাপোল ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ বজলুর রহমান, পুটখালী ইউপি চেয়ারম্যান হাদিউজ্জামান, শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার, বেনাপোল পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি জুলফিকার আলী মন্টু, সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট স্টাফ এসোসিয়েশনের সহ সভাপতি আমিরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক শাকিলুর ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক আশানুর রহমান, শ্রম ও কল্যান বিষয়ক সম্পাদক রেজাউল ইসলাম লাল্টু, বন্দর বিষয়ক সম্পাদক কামাল হোসেন মোড়ল, কার্গো বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, কাষ্টমস্ বিষয়ক সম্পাদক মহিউদ্দীন, প্রচার ও ক্রীড়া সম্পাদক কবির হোসেন, ব্যাংক বিষয়ক সম্পাদক বিল্লাল হোসেন মিন্টু, সদস্য রিয়াজুল ইসলাম ওয়াসীম, রানা আহম্মেদ, আসাদুজ্জামান আসাদ, সুমন হোসেনসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।