যশোর সিটি কলেজের ছাত্রকে অপহরণ করে আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোর সরকারি সিটি কলেজের ছাত্র মোস্তাক আহমেদকে (১৮) আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায় করেছে ওই এলাকার একদল দুর্বৃত্ত। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার দুপুরে সিটি কলেজের পাশে পানির ট্যাংকির কাছে।
মোস্তাক মণিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ মল্লিকপুর গ্রামের রুহুল কুদ্দুসের ছেলে এবং সিটি কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্র।
মোস্তাক অভিযোগ করেছেন, বুধবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে তিনি কলেজ থেকে বাইরে বের হন। গেটের সামনে পৌছালে ৫ যুবক চাকু ঠেকিয়ে তাকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তিনি যেতে না চাইলে তাকে চড়থাপ্পড় মারা হয়। পরে তাকে মোল্লাপাড়া পানির ট্যাংকির পাশে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নিয়ে তাকে মারপিট করা হয় এবং হত্যার হুমকি দেয়। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন দিয়ে তার পিতাকে ফোন করে ১০ হাজার দিতে বলে। টাকা না দিলে তাকে ছাড়া হবে না বলে হুমকি দেয়। পরে তার পিতা একটি এজেন্টের বিকাশ নম্বরে ১০ হাজার টাকা বিকাশ করলে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। মোস্তাক ওই এলাকার একটি মেসে থাকেন।
মোস্তাকের পিতা রুহুল কুদ্দুস জানিয়েছেন, দুপুরে মোস্তাকের মোবাইল ফোন ব্যবহার করে তার কাছে ফোন দেয়া হয়। বলা হয় টাকা না দিলে তাকে ছাড়া হবে না। জীবনে শেষ করে দেবে। দিশেহারা হয়ে তিনি দুর্বৃত্তদের দেয়া একটি বিকাশ নাম্বারে টাকা পাঠিয়ে দেন। পরে পুলিশে সংবাদ দিলে পুলিশ সেখানে যায়। এবং সিটি কলেজ গেটে সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। রাতে তিনি কোতয়ালি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন।
এ বিষয়ে কোতয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সমির কুমার সরকার জানিয়েছেন, সিটি কলেজের একটি ছেলেকে আটকে রেখে কে বা কারা মুক্তিপণ আদায় করেছে বলে জানতে পেরেছি। সেখানে পুলিশ পাঠিয়ে ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে। আর ওই ছাত্রের পিতা একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।