গাজীপুর থেকে অপহৃত শিশু যশোরে উদ্ধার, অপহরণকারী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক>
৬ লাখ টাকা মুক্তিপণের দাবিতে গাজীপুর থেকে অপহরণ করে নিয়ে আসা তিন বছরের শিশু মালিহাকে যশোর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে অপহরণকারীকে।
গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে সদর উপজেলার সাতমাইল বাজার থেকে আরমান (৩৬) নামে ওই অপহরণকারীকে আটক করা হয়। তিনি বাগেরহাটের মোল্লারহাট উপজেলার কোদালিয়া গ্রামের আনছার আলী ফকিরের ছেলে। আর মালিহা গাজীপুরের বড়বাড়িয়া গ্রামের শহিদুল ইসলামের মেয়ে।
কোতয়ালি থানার এসআই মোখলেছুজ্জামান বলেছেন,রাত সাড়ে ১০টার দিকে সাতমাইল বাজার থেকে পুলিশে সংবাদ দেয়া হলে সেখানে গিয়ে আরমানকে আটক করা হয়। তার সাথে তিন বছরের শিশু মালিহা ছিল। সে কান্নাকাটি করছিল। লোকজনের কাছ থেকে তিনি জানতে পারেন রাতে আরমান ওই শিশুকে কোলে নিয়ে বাজারে ঘোরাফেরা করছিল। সে সময় শিশুটি খুব কান্নাকাটি করছিল। কিছুতেই থামাতে পারছিল না আরমান। ওই দৃশ্য দেখে বাজারের লোকজনের সন্দেহ হয়। তারা জিজ্ঞাসা করলে তার মেয়ে বলে জানান। কিন্তু কোথায় যাবে কি কারণে এসেছে এই সব ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি এলোমেলো কথা বলতে থাকেন। পরে লোকজনের সন্দেহ আরো বাড়লে পুলিশে সংবাদ দেয়।
মোখলেছুজ্জামান আরো জানিয়েছেন, আরমানকে আটক করে থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তখন সে স্বীকার করে, মালিহাদের বাড়ির পাশে সে ভাড়া থাকে। মালিহার পিতা সৌদি আরব প্রবাসী। সোমবার তাকে কৌশলে অপহরণ করে যশোরে আনা হয়। ৬ লাখ টাকা মুক্তিপণের জন্য মালিহাকে অপহরণ করে। কিন্তু টাকা চাওয়ার সময় পাননি। তার আগেই লোকজন তাকে আটক করে।
তিনি আরো বলেছেন, মঙ্গলবার রাতে আরমানের কাছ থেকে মোবাইল ফোন নাম্বার নিয়ে মালিহার মা নাছিমা আক্তারকে ফোন করা হয়। বুধবার সকালে নাছিমা আক্তার যশোর কোতয়ালি থানায় আসেন ও মেয়েকে সনাক্ত করেন। এবং সকালে পুলিশ তার জিম্মায় মালিহাকে দিয়ে দেয়। নাছিমা আক্তার মেয়ে হারিয়ে যাওয়ার বিষয়ে স্থানীয় থানায় একটি জিডি করেন। সকালে পুলিশ এসে আরমানকে নিয়ে যায়।