যৌতুক মামলায় কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোরে যৌতুক মামলায় আশরাফুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তিকে ২ বছর সশ্রম কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দিয়েছে একটি আদালত। বুধবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো.বুলবুল ইসলাম এক রায়ে এ সাজা দিয়েছেন। সাজাপ্রাপ্ত আশরাফুল ইসলাম ঝিনাইদহ কালীগঞ্জের তেঘরী গ্রামের হাশেম আলীর ছেলে।
মামলার অভিযোগে জানা গেছে, ১৯৯৮ সালের ৫ মার্চ আসামি আশরাফুল ইসলাম যশোর সদরের বাগডাঙ্গা গ্রামের হারেজ সরদারের ছেলে কুলসুম বেগমকে বিয়ে করে। বিয়ের সময় দাবিকৃত ১লাখ টাকা না দেয়ায় কুলসুম বেগমের উপর শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন করত তার স্বামী। কুলসুম বেগম তার পিতার কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে ৭০ হাজার টাকা এনে দেয়। আশারফুল ইসলাম এ টাকা নেয়ার কয়েক বছর পর আবারও ১ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে কুলসুম বেগমের উপর নির্যাতন শুরু করে। যৌতুকের টাকা এনে দিতে অস্বীকার করায় কুলসুম বেগমকে মারপিট করে ছেলে-মেয়েসহ পিতার বাড়ি তাড়িয়ে দেয়। ২০১৫ সালের ৮ আগস্ট মীমাংসায় ব্যর্থ হয়ে কুলসুম বেগম ওই বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর আদালতে যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা করেন। এ মামলার স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামি আশরাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক তাকে ২বছর সশ্রম কারাদন্ড, ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন। সাজাপ্রাপ্ত আশরাফুল ইসলাম পলাতক রয়েছে।