যশোরে সোহাগ পরিবহন কাউন্টারের ব্যবস্থাপক আটকের পর মুক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোর উপশহর খাজুরা বাসস্ট্যান্ডের সোহাগ পরিবহন কাউন্টারের ব্যবস্থাপক খোকনকে আটকের পর মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। হারিয়ে যাওয়া পরিবহণের টিকিটের জন্য এক মহিলা যাত্রীর কাছ থেকে বাড়তি টাকা নেওয়ার অভিযোগে তাকে আটক করা হয়। বৃহস্পতিবার পরিচালিত একটি ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে আটক করে। পরে ভুল স্বীকার করে বাড়তি টাকা ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি ও মুচলেকা দেওয়ায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।
এদিকে সোহাগ কাউন্টার ম্যানেজারকে আটকের প্রতিবাদে ক্ষুদ্ধ পরিবহন শ্রমিকেরা সড়ক অবরোধ করে রেখেছিলেন। পরে তাকে ছেড়ে দেওয়ার পর শ্রমিকরা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেন।
আদালতের পেশকার শেখ জালাল উদ্দীন জানান, এক মহিলা যাত্রী তার টিকিট হারিয়ে ফেলার ঘটনাটি উপশহরস্থ সোহাগ পরিবহন কাউন্টার ম্যানেজারকে অবহিত করেন। কিন্তু তিনি তাকে বিকল্প টিকিটের ব্যবস্থা না করে এ জন্য বাড়তি ২শ’৫০ টাকা আদায় করেন। পরে ওই মহিলা যাত্রী জেলা প্রশাসকের দফতরে একটি অভিযোগ করেন। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জামশেদ উল আলমের নেতৃত্বে একটি ভ্রাম্যমাণ আদালত সোহাগ কাউন্টারে যান। এ সময় সোহাগ পরিবহনের অনলাইন পরীক্ষা করে দেখতে পাওয়া যায় ওই মহিলা টিকিট সংগ্রহ করেছিলেন। ফলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জামশেদ উল আলম সোহাগের ব্যবস্থাপক খোকনকে আটক করে নিয়ে যান। এরপর খোকন তার ভুল স্বীকার করেন ও মহিলা যাত্রীর কাছ থেকে নেয়া বাড়তি টাকা ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। আদালত তার কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে মুক্তি দিয়েছে।
এদিকে সোহাগের খোকনকে ভ্রাম্যমাণ আদালত আটক করার প্রতিবাদে সেখানকার পরিবহন শ্রমিকেরা সড়ক অবরোধ করে রাখেন। এ খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। পরে আদালত খোকনকে ছেড়ে দেওয়ায় শ্রমিকেরা অবরোধ তুলে নেন।