কুরিয়ার সার্ভিসে কয়েন আনতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন স্কুলশিক্ষিকা ও কলেজপড়ুয়া মেয়ে!

নিজস্ব প্রতিবেদক>
জয়পুরহাট থেকে কুরিয়ার সার্ভিসে স্বামীর পাঠানো কয়েন আনতে গিয়ে যশোর উপশহরে বিজিবির হাতে আটক হলেন স্কুল শিক্ষিকা ও তার কলেজ পড়ুয়া মেয়ে। আটককৃতরা হলেন, উপশহর এলাকার বিল্লাল হোসেনের স্ত্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা সুলতানা পারভীন বেবী (৩৮) ও মেয়ে ক্যান্টনমেন্ট কলেজের এইচএসসি প্রথমবর্ষ (বিজ্ঞান বিভাগ) সুমাইয়া সুলতানা (১৬)।
বিজিবি প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে দাবি করেছে, শুক্রবার রাত ৯টার দিকে ৪৯ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের সহকারী পরিচালক ফারুক হোসেনের নেতৃত্বে একটি টহল দল যশোর শহরের নিউ মার্কেট এলাকাস্থ ইউএস-বাংলা কুরিয়ার সার্ভিস থেকে ওই দুইজনকে আটক করে। এসময় বাংলাদেশি ১ টাকা, ২ টাকা ও ৫ টাকার ১৮৪কেজি মুদ্রা উদ্ধার করা হয়।
এ বিষয়ে শিক্ষিকার স্বামী বিল্লাল হোসেন জানান, তার স্ত্রী সরকারি প্রাথমিকের শিক্ষিকা ও মেয়ে এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী। তারা তার পাঠানো কয়েন কুরিয়ার সার্ভিস থেকে আনতে গিয়েছিল। তিনি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের কাজ করেন। বিভিন্ন স্থানে আনন্দমেলার আয়োজন করেন। জয়পুরহাট থেকে তিনি তার কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে নোটের পরিবর্তে কয়েন পান। যা ব্যাংকগুলো গ্রহণ করে না। এই টাকার কয়েন তিনি বাড়িতে খরচের জন্যে পাঠান। এ সম্পর্কিত কাগজপত্রও রয়েছে। কিন্তু বিজিবি তার কথা শোনেনি। তারা কেন যে তার স্ত্রী ও মেয়েকে আটক করলো বুঝতে পারছেন না। তার স্ত্রী-মেয়ে অন্যায়ভাবে ফেঁসে গেল এই বলে তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন। বিজিবি গভীরভাবে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে পারত।
৪৯ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের কমান্ডার লে. ক. আরিফুল হক সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘ভারতে কয়েন পাচার হচ্ছে-এমন খবরের ভিত্তিতে আমরা দুইজনকে আটক করি। তারা দায়ী কি না তা নির্ধারণ করবেন আদালত। আটকদের থানায় চালান দেয়া হয়েছে; জমা দেয়া হয়েছে কয়েনও।’