আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্নতা অর্জন করেছি ———–শেখ আফিল উদ্দিন এমপি

ইয়ানূর রহমান >
যশোর-১ (শার্শা) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন এমপি বলেছেন, আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্নতা অর্জন করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে ক্ষুধামুক্ত দারিদ্রমুক্ত এবং সুস্থ জাতি গঠনের মধ্য দিয়ে বিশ্বে একটি উন্নত দেশ গঠনের যে ভিষণ সেই লক্ষ্য নিয়ে সরকার কাজ করছে। এক্ষেত্রে সকলকে এক হয়ে সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করতে হবে।
তিনি মঙ্গলবার দুপুর ২টায় শার্শার খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানে এবং নবনির্বাচিত রাইচমিল মালিক সমিতির পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে এ কথা বলেন।
সংসদ সদস্য খাদ্য কর্মকর্তাদের খাদ্য শষ্য সংগ্রহ করতে গুণগত মান নিশ্চিত করার পাশাপাশি কৃষকরা যাতে হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে খাদ্য কর্মকর্তাদের সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রদান করেন। তিনি সকলকে একসাথে কাজ করে সরকারের লক্ষ্য অর্জনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর মুখ উজ্জল করার তাগিদ দেন।
আরো বলেন, আসলেই আমরা ইতিহাসে পড়তে পড়তে বাস্তব ভুলে যাই! মনে আছে কোন খাঁ এর আমলে ক’টাকায় ক’মণ ঘি পাওয়া যেতো? হ্যাঁ, জানি উত্তরটা সবারই মুখস্ত আছে তাই এই ঐতিহাসিক নামটা আর মনে করিয়ে দিচ্ছি না। তবে হ্যাঁ এই ঐতিহাসিক নামটির সাথে আরেকটি নাম জেনে রাখুন সেটা হলো শেখ হাসিনা, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যার কারনে সেই “১০ টাকা কেজি চাল” আজ আর স্বপ্ন নয় বাস্তব। মনে পরে সেই নির্বাচনী ইশতেহার যেখানে ছিলো দারিদ্রতা দূরীকরণ ও ৭১ এর রাজাকারদের বিচারসহ আরো অনেক প্রগতিশীল উন্নয়নমুলক প্রকল্প যার বাস্তবায়ন আমরা একে একে চোখের সামনেই দেখছি।
তিনি আরো বলেন, মনে পড়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সেই বক্তব্যের কথা ”নৌকা মার্কায় ভোট দেব, ১০ টাকায় চাল খাবো” সেই বক্তব্যটি নিয়ে বিরোধী দলের কর্তাব্যক্তিরা যে কি পরিমাণের কুৎসিত ঠাট্টা, তামাশা ও মসকারা করতো তা ভদ্রসমাজে বলার বাহিরে। শুধুমাত্র আমরাই জানতাম শেখ হাসিনা যা বলেন তাই করেন, তাই গভীর আস্থা নিয়ে অপেক্ষা করছিলাম আজকের এই দিনটির জন্য। সকল সমালোচকদের মুখে চুনকালি দিয়ে আমাদের নেত্রী আজ বাস্তবেই ৫০ লক্ষ মানুষকে ১০ টাকা কেজি ধরে চাল খাওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন যা অভুতপূর্ব।
নবনির্বাচিত রাইচমিল মালিক সমিতির সভাপতি আজগর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, শার্শা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মঞ্জু, জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আসিফ উদ দৌলা অলক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ নুরুজ্জামান, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক নকীব সাদ সাইফুল ইসলাম, মাগুরা জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক শেখ মঈন উল ইসলাম, নড়াইল জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনোতোস কুমার মজুমদার, শার্শা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক ইন্দ্রজিৎ সাহা, বাংলাদেশ খাদ্য পরিদর্শক সমিতির খুলনা বিভাগীয় সহ-সভাপতি মনিরুল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামীলীগের কোষাধক্ষ ওয়াহেদুর রহমান, চেয়ারম্যান সোহারাব হোসন, শার্শা সদর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক আলহাজ মোরাদ হোসেন, ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে বিদায়ী খাদ্য কর্মকর্তা তৈয়েবুর রহমা, বরণকৃত আকতারুজ্জামান ও হাসানুজ্জামানকে স্মারক ক্রেস্ট তুলে দেন অতিথি।