যশোরে মাসব্যাপি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গণহত্যা ও মুক্তিযুদ্ধের কথা তুলে ধররেন মুক্তিযোদ্ধারা

নিজস্ব প্রতিবেদক >
২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস ও ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসকে সামনে রেখে মাসব্যাপী যশোরের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গণহত্যা এবং মুক্তিযুদ্ধের কথা তুলে ধরবেন মুক্তিযোদ্ধারা। সোমবার দুপুরে কালেক্টরেট সভাকক্ষে এক প্রস্তুতিসভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল। উপস্থিত ছিলেন এবং আলোচনায় অংশ নেন স্থানীয় সরকার বিভাগ যশোরের উপপরিচালক নুর-ই-আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) হুশাইন শওকত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) দেবপ্রসাদ পাল, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন বৃহত্তর যশোরের মুজিব বাহিনীর প্রধান আলী হোসেন মনি, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার রাজেক আহমেদ, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি শরিফুল ইসলাম চৌধুরী, জেলা সিনিয়র তথ্য অফিসার এএসএম কবীর, শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা সাধন কুমার দাস, জেলা শিল্পকলা একাডেমিার সহসভাপতি সুকুমার দাস, জেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি হারুণ অর রশিদ, সাংবাদিক সাজ্জাদ গণি খান রিমন, প্রণব দাস । এসময় বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সেবা প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন। সভায় জানানো হয়, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী মার্চের প্রথম দিন থেকে ২৫ মার্চ পর্যন্ত সময় বুঝে প্রতিটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে আলোচনাসভার আয়োজনসহ ২৬ মার্চ বিস্তারিত কর্মসূচির মধ্যদিয়ে উদযাপিত হবে স্বাধীনতা দিবস। এরমাঝে ৭ মার্চে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহানের ঐতিহাসিক ভাষণ স্মরণেও থাকবে কর্মসূচি। এছাড়া ২৫ মার্চ কালোরাত স্মরণে মোমবাতি প্রজ্বালনের জন্যে সকল প্রতিষ্ঠানের প্রতিও আহবান জানানো হয়।