যশোরে আ’লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

শনিবার দুপুরে উপজেলার সিদ্ধিপাশা ইউনিয়নের সোনাতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সালাম সিদ্ধিাপাশা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য। তিনি সোনাতলা গ্রামের মৃত রাঙ্গা মিয়ার ছেলে।

নিহতের ভাই শেখ হারুন ও হামলাকারী হাবিবকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।স্থানীয় সোনাতলা পুলিশ ক্যাম্পের এসআই আল আমিন জানান, শনিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সালামের সঙ্গে প্রতিবেশী মৃত আলী আকবর শেখ ওরফে নেদার ছেলে আসাদ ও হাবিবের একটি গাছ কাটাকে কেন্দ্র বিবাদের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে আসাদ ও হাবিবের হাতে থাকা গাছি দা ও হাসুয়া দিয়ে আব্দুস সালামকে কোপাতে শুরু করে। এসময় আব্দুস সালামকে বাঁচাতে তার বড় ভাই শেখ হারুন এগিয়ে এলে তাকেও কুপিয়ে জখম করা হয়। পরবর্তীতে হামলাকারী দুই ভাই পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে গ্রামবাসী হাবিবকে ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। অপরজন আসাদ পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রক্তাক্ত জখম আব্দুস সালাম, আহত হারুন ও হাবিবকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। বেলা ৩টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুস সালামের মৃত্যু হয়।

সিদ্ধিপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা খান এ কামাল হোসেন নিহতের ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, শনিবার দুপুরে একটি গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে এ হত্যার ঘটনা ঘটে। হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন তিনি।

অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। হত্যাকারীদের একজন পুলিশ হেফাজতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অপর পলাতক আসামির আটকে অভিযান অব্যাহত আছে।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি।