নরসিংদীতে মা-মেয়ে গণধর্ষণের প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :

নরসিংদীতে মা-মেয়ে গণধর্ষণের প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

নরসিংদীর শিবপুরে মা-মেয়েকে গণধর্ষণের ঘটনার আলোচিত মামলার প্রধান আসামি মোখলেছকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১।

সোমবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একই জেলার মাধবদী পৌরসভা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগর এলাকায় র‌্যাব-১১ এর ব্যাটালিয়ান অধিনায়ক (সিও) লেফটেনেন্ট কর্নেল কাজী শামশের উদ্দিন তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো জানান, গ্রেপ্তার মোখলেছ মা-মেয়ে ধর্ষণের ঘটনার মূল হোতা।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে সে এ ঘটনার দায় স্বীকার করেছে। তার বিরুদ্ধে এর আগেও ধর্ষণ এবং অস্ত্র আইনসহ বিভিন্ন অভিযোগে আরো ছয়টি মামলা রয়েছে।

ধর্ষণের ঘটনার সাথে জড়িত এই মামলার অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

গ্রেপ্তার মোখলেছের স্বীকারোক্তির কথা উল্লেখ করে র‌্যাব-১১ এর সিও লেফটেনেন্ট কর্নেল কাজী শামশের উদ্দিন জানান, গত ১৫ মার্চ সকালে ঢাকা থেকে হবিগঞ্জগামী একটি যাত্রীবাহী বাসে চড়ে মা ও মেয়ে একসঙ্গে বাড়ি ফিরছিলেন। সন্ধ্যায় বাসটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে নরসিংদী জেলার শিবপুরের সৃষ্টিগড় বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বিকল হয়ে যায়।

এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত স্থানীয় বাসিন্দা মোখলেছ ও তার পাঁচ সহযোগী দেলোয়ার হোসেন, শফিক, বাদল, বাবু এবং আলমগীর মিলে মা ও মেয়েকে অন্য বাসে উঠিয়ে দেয়ার কথা বলে সেখানকার একটি জুট মিলের (প্রাইম জুট মিল) পরিত্যক্ত কক্ষে নিয়ে যায়। পরে মোখলেছের নেতৃত্বে ওই ছয়জন মা ও মেয়েকে  পালাক্রমে গণধর্ষণ করে।

এ সময় মা-মেয়ের ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাদের উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এর মধ্যে ধর্ষক মোখলেছ ও তার সহযোগীরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় শিবপুর থানায় মামলা দায়ের হলে পরে পুলিশ দেলোয়ার হোসেন ও শফিককে গ্রেফতার করে। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব সোমবার ভোরে অভিযান চালিয়ে ধর্ষণের ঘটনার প্রধান আসামি মোখলেছকে গ্রেপ্তার করে। তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।