নড়াইলে হামলায় প্রবাসী নিহত, আহত ৫

নড়াইল প্রতিনিধি :

নড়াইলে হামলায় প্রবাসী নিহত, আহত ৫

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার নোয়াগ্রামে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় এক কুয়েত প্রবাসী নিহত হয়েছেন। এসময় অন্তত ৫ জনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে। নিহত সৈয়দ মিজানুর রহমান (৪৫) নোয়াগ্রামের সৈয়দ সিদ্দিক আলীর ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন কুয়েতে ছিলেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, নোয়াগ্রামের সৈয়দ মাসুম আলী ও সৈয়দ লেবু গ্রুপের সাথে প্রতিপক্ষ গ্রুপ ইউপি সদস্য বুলবুল হোসেন ও সেলিম পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন এলাকায় আধিপত্য ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে বিরোধ চলে আসছিল।

গত শুক্রবার থেকে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করায় এলাকায় পরিস্থিতি শান্ত রাখতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

ইউপি সদস্য বুলবুল হোসেন অভিযোগ করেন, পুলিশের উপস্থিতি থাকায় এবং মীমাংসার প্রস্তাব দেয়ায় তাদের পক্ষের লোকজন বাড়িতে চলে যায়। এসময় পরিকল্পিতভাবে সৈয়দ মাসুম আলীর নেতৃত্বে তার লোকজন ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষ ইউপি সদস্য বুলবুল হোসেনের পক্ষের লোকজনের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

হামলায় কুয়েত প্রবাসী মিজানুর রহমান (৪৫), সৈয়দ শওকত আলী (৫০), বাকী মিয়া (৬৫), সৈয়দ সাচ্চু আলী (১৮), সৈয়দ ইমরান আলী (৩০) গুরুতর জখম হয়।

আহতদের লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসকরা মিজানুর রহমানকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত মিজানুর রহমানের কপালে গুরুতর জখম হওয়ায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয়। এছাড়া অন্য আহতদের লোহাগড়া, নড়াইল ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

লোহাগড়া থানার ওসি প্রবীর বিশ্বাস জানান, শনিবার সকালে বিরোধ মীমাংসার জন্য এলাকায় গিয়েছিলাম। উভয়পক্ষ কোনো গোলযোগ করবে না মর্মে ওয়াদা করে। এরপর কিছু পুলিশ সদস্য এলাকায় মোতায়েন রেখে থানায় ফিরে আসি। এরপরই এ ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে ওসি জানান।