আরো জঙ্গি হামলার আশঙ্কা উড়িয়ে দিচ্ছে না শ্রীলঙ্কা

স্পন্দন আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডের দিন আত্মঘাতী বোমা হামলায় জড়িত সন্ত্রাসী নেটওয়ার্কের বেশিরভাগই ধ্বংস করা গেলেও ভবিষ্যতে আরো হামলার আশঙ্কা এখনই উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না বলে সতর্ক করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহ।

গত ২১ এপ্রিলের ভয়াবহ ওই হামলার পর শ্রীলঙ্কা সরকার সন্ত্রাস দমনে নতুন আইন প্রণয়নের পরিকল্পনা করছে বলেও জানান তিনি।

তিনটি গির্জা ও চারটি অভিজাত হোটেলে ওইদিন একযোগে বোমা হামলায় ২৫৯ জন নিহত হয়; আহত হন পাঁচ শতাধিক মানুষ। মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক জঙ্গিদল ইসলামিক স্টেট (আইএস) ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে।

মঙ্গলবার পার্লামেন্টে বিক্রমসিংহ বলেন, “আমরা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।”

“তবে আমাদের মনে রাখা উচিত, এ হুমকি এখনো পুরোপুরি শেষ হয়ে যায়নি। কারণ একটি আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসীদল এ কাজ করেছে।”

শ্রীলঙ্কায় হামলা পরিকল্পনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা আরো ১০ জনকে এখনো পুলিশ খুঁজছে বলে মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টর্সকে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সেনা কর্মকর্তা।

শ্রীলঙ্কার ওই সেনা কর্মকর্তা বলেন, “হামলা পরিকল্পনার সময় আরো অন্তত আট থেকে ১০ জন বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তারা।”

আত্মঘাতী হামলাকারী এবং তাদের সঙ্গে জড়িত সন্দেহভাজনদের প্রায় চার কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের সম্পদ জব্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সোমবার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশ করা একটি অডিও বার্তায় পুলিশ প্রধান চন্দনা বিক্রমারত্নে বলেন, হামলা পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত প্রায় সবাইকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে বা তারা নিহত হয়েছে।

তিনি বলেন, “হামলা পরিকল্পনাকারীদের দলে দুই জন বোমা তৈরিতে বিশেষজ্ঞ ছিলেন, যারা মারা গেছেন।

“তারা ভবিষ্যতে আরো হামলা চালানোর জন্য বিস্ফোরক মুজদ করেছিল, যেগুলো আমরা উদ্ধার করেছি।”

এফবিআই এবং ইন্টারপোলসহ আটটি দেশের গোয়েন্দা সংস্থা ২১ এপ্রিলের বোমা হামলা নিয়ে শ্রীলঙ্কাকে তদন্তে সাহায্য করছে।