তালাক দেয়া স্বামীর হামলার শিকার সেবিকা

::নিজস্ব প্রতিবেদক::

তালাক দেয়া স্বামীর হাতে মারপিট, ছিনতাই ও শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন যশোর আদ্বদীন শিশু হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স নাসরিন সুলতানা (৩০)। তিনি যশোর সদর উপজেলার দত্তপাড়া গ্রামের রওশন আলীর মেয়ে।

কোতয়ালি থানায় দায়ের করা এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, একই গ্রামের মৃত রহিম বক্সের ছেলে আব্দুল হাকিমের সাথে এক বছর আগে তার বিয়ে হয়। বিয়ের সাত মাসের মাথায় গত ৯ ডিসেম্বর তিনি হাকিমকে তালাক দেন। এরপর থেকে হাকিম তাকে নানাভাবে ক্ষতি করার ষড়যন্ত্র করতে থাকে। এই বিষয়টি নিয়ে গ্রাম্য শালিস হয়। সেখানে হাকিমকে সতর্ক করে দেয়ার পরও সে নানা আজেবাজে কথা বলতে থাকে।

গত ১৪ মে রাতে তিনি ডিউটি শেষ করে বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। রাত ৮টার দিকে দত্তপাড়া মোড়ের অদুরে পৌছালে হাকিম তার আরো দুই সঙ্গীকে নিয়ে তাকে ঘিরে ধরে এবং এলোপাতাড়ি কিলঘুষি মারে। তার পরনের কাপড় টেনে হিচড়ে শ্লীলতাহানি ঘটায়। এতে তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে তার কানের দুল, গলার চেইন, হাতের চুড়ি এবং একটি মোবাইল ফোনসেট নিয়ে চলে যায়।

তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।