সাতক্ষীরায় আরও ২ গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

::সাতক্ষীরা প্রতিনিধি::

সাতক্ষীরায় যৌতুক না দেওয়ায় এক দিনের ব্যবধানে আরও দুই গৃহবধূকে হত্যার পর আত্মহত্যা বলে প্রচারের অভিযোগ উঠেছে।শুক্রবার সকালে পুলিশ এই দুই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে। তারা হলেন- জেলা শহরের কামালনগর এলাকার সাকিব হোসেনের স্ত্রী সুমাইয়া খাতুন মুন্নী (১৯) ও তালা উপজেলার মুড়োগাছা গ্রামের আছমত উল্লাহর স্ত্রী রেহানা বেগম (৩০)।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিলকিস খাতুন (২২) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তাকেও হত্যার পর আত্মহত্যা বলে প্রাচারের অভিযোগ করেছে পরিবার।সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মুন্নীকে মেরে হত্যার পর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে অত্মহত্যা বলে প্রচারের অভিযোগ পেয়েছেন তারা। পুলিশ ঘটনা তদন্ত করে দেখছে।

মুন্নীর খালা ফাতেমাতুজ জোহরা বলেন, দেড় বছর আগে মুন্নীর বিয়ে হয় শহরের কামালনগর এলাকার সাকিব হোসেনের সঙ্গে।

বিয়ের পর থেকে সে প্রায়ই রেহানাকে পারিবারিক কলহের জেরে মারধর করত। এরই জেরে শুক্রবার ভোরে মারধরের পর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে অত্মহত্যা বলে প্রচার করে।

রেহানাকে যৌতুক না দেওয়ায় তার শশুরবাড়ির লোকজন মেরে হত্যার পর বিষ খাইয়ে আত্মহত্যার প্রচার করছেন বলে পুলিশ অভিযোগ পেয়েছে, জানিয়েছেন তালা থানার ওসি মেহেদী রাসেল।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিলকিস খাতুন (২২) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বিলকিস উপজেলার ইসলামকাটি ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের কবির শেখের (২৮) স্ত্রী। তাকে হত্যার পর মুখে বিষ ঢেলে আত্মহত্যা বলে প্রাচারের অভিযোগ করেছেন স্বজনরা।সব লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর পাশাপাশি পুলিশ ঘটনা তদন্ত করছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।