নির্বাসখোলায় ভিজিএফ’র কার্ড বিতরণ নিয়ে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার নির্বাসখোলা ইউনিয়নে ভিজিএফের চাল বিতরণ নিয়ে এমপি ও উপজেলা চেয়ারম্যান প্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় জেরে ইউপি চেয়ারম্যান ১৫ দিনের ছুটি চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেছেন।
জানা যায়, ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে হত দরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্য শস্য বিতরণ করার জন্য গত সোমবার সকালে নির্বাসখোলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় শুরুতে চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানান, এবার ইউনিয়নে মোট ৫১১২ টি কার্ড এসেছে। এই কার্ডগুলো জনসংখ্যার ভিত্তিতে বিতরণ করতে হবে। এসময় তিনি প্রস্তাব করেন, একজন চেয়ারম্যান হিসেবে ইউনিয়নের বিভিন্ন মানুষের আমার কাছে দাবী থাকে। যে কারণে কিছু কার্ড চেয়ারম্যানের হাতে রাখা হোক। প্রস্তাবের সাথে সাথে এমপি প্রতিনিধি ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আয়নাল হোসেন ও উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রতিনিধি ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফা দাবী করেন, যে কয়টি কার্ড চেয়ারম্যান হাতে রাখবে, সমপরিমাণ কার্ড এমপি ও উপজেলা চেয়ারম্যান প্রতিনিধিদের দিতে হবে। এই নিয়ে চেয়ারম্যান ও দুই প্রতিনিধিদের মাঝে মনোদ্বন্ধের সৃষ্টি হয়।
ওইদিনই চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট ১৫ দিনের ছুটি চেয়ে লিখিত আবেদন করেছেন। আবেদনে শারীরিক অসুস্থতার কথা উল্লেখ করলেও ছুটির নিয়ে তিনি দায়িত্ব থেকে দূরে থাকতে চান বলে নাম প্রকাশে কয়েকজন ইউপি সদস্য জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, চেয়ারম্যান এবং এমপি ও উপজেলা প্রতিনিধি এক হতে পারে না। তারা প্রভাব খাটিয়ে কর্তৃত্ব ফলাচ্ছে। আমিও তাদের সুযোগ দিতে চায়। সেই সুযোগে আমার শারীরিক চিকিৎসাটা সেরে নিতে চাই।
এ ব্যাপারে প্যানেল চেয়ারম্যান ইউপি সদস্য হাফিজুর রহমান জানান, বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ব্যাপার। তিনি এখনও কোন কিছু জানাননি। তিনি যদি চেয়ারম্যানকে ছুটি দিয়ে আমাকে দায়িত্ব দেন, তাহলে আমি দায়িত্ব নেব।