নাশকতা পরিকল্পনায় ফের টিএস আইয়ুবসহ অভিযুক্ত ৬৩

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোরের বাঘারপাড়ার একটি নাশকতার পরিকল্পনা ও বিস্ফোরক মামলায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার টিএস আইয়ুবসহ ৬৩ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দিয়েছে পুলিশ। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ না পাওয়ায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা অনিন্দ্য ইসলাম অমিতসহ ৩ জনের অব্যহতির আবেদন করা হয়েছে চার্জশিটে। মামলার তদন্ত শেষে আদালতে এ চার্জশিট জমা দিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই এসআই মুজিবর রহমান।
অভিযুক্ত আসামিরা হলো বাঘারপাড়ার পুকুরিয়া গ্রামের আবু তালেব, নরসিংহপুর গ্রামের ফিরোজ, মাঝিয়ালি গ্রামের আনিসুর রহমান খোকন, উত্তর চাঁদপুর গ্রামের মোস্তফা, গাইদঘাট গ্রামের মনিরুল ইসলাম তপন, কেশবপুর গ্রামের টিটু, মিঠু, মথুরাপুর গ্রামের রবিউল ইসলাম, সাইদ ড্রাইভার, পান্তাপাড়া গ্রামের খোকন, বাবুল, তেলিধান্যপাড়া গ্রামের বাচ্চু, গেলাম মোস্তফা, রবিউল ইসলাম, বড় খুদড়া গ্রামের ফিরোজ বাবুল, কাশেম আলী, কবির হোসেন, হালিম বিশ্বাস, মেহের আলী, প্রেমচারা গ্রামের মতিয়ার, দাউদ বিশ্বাস, মফিজুর রহমান, দুর্গাপুর গ্রামের জিয়াউর রহমান, আব্দুর রহিম মেম্বর, আতর আলী, কৃষ্ণনগর গ্রামের ইদ্রিস শেখ, লিটন, ইসহাক শেখ, নলডাঙ্গা গ্রামের মোশারেফ হোসেন, পাকুড়িয়া গ্রামের সুলতান মুন্সি, মহিরণ গ্রামের শফি মেম্বর, সিরাজ, আবদুল্লাহ, হাবিবুল্লাহ, রায়পুর গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস, গরিবপুর গ্রামের লিটন হোসেন, দোহাকুলা গ্রামের বাহারুল ইসলাম, কড়ইতলা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক, বাঘারপাড়া গ্রামের নাজিম উদ্দিন, নাসির হায়দার, দরাজহাট গ্রামের শাহজাহান, উত্তর শ্রীরামপুর গ্রামের হাফিজুর রহমান, পশ্চিমা গ্রামের হাফিজুর রহমান, দয়রামপুর গ্রামের আবু সাইদ, সুলতান মোল্লা, রফিউদ্দিন মোল্লা, মশিয়ার রহমান, তেঘরি গ্রামের আসলাম ফকির, পাকের আলী গ্রামের শীহদ মন্ডল, দশপাখিয়া গ্রামের রুহুল, আন্দুলবাড়িয়া গ্রামের কবির, দৌলতপুর গ্রামের নাজমুল লস্কার, বারভাগ গ্রামের বুলু মাস্টার, করিমপুর গ্রামের হায়দার আলী, বনগ্রামের রেজাউল ইসলাম, পাঠান পাইকপাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক খান, দোহাকুলা গ্রামের ওয়াহিদুজ্জামান, আসলাম হোসেন, ঠাকুরকাঠি গ্রামের সুরমান মোল্লা, বোয়ালিয়া গ্রামের রুবন অধিকারী ও ভিটাবল্লা গ্রামের রফিউদ্দিন।
মামলার অভিযোগে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর পুলিশ গোপন সংবাদে জানতে পারে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা টিএস আইয়ুবের নেতৃত্বে বাঘারপাড়া চৌরাস্তা মোড়ে জড়ো হয়ে বাজারে নাশকতার পরিকল্পনা করছে। বেলা ১১টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে কয়েকটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সকলে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে এসআই শাহ আলম বাদী হয়ে বাঘারপাড়ার থানায় একটি মামলা করেন। এ মামলার তদন্ত শেষে আটক আসামিদের দেয়া তথ্য ও স্বাক্ষীদের বক্তব্যে ঘটনার সাথে জড়িত থাকায় ওই ৬৩ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে এ চার্জশিট জমা দিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।